লগইন রেজিস্ট্রেশন

কিছু বেসিক কনসেপ্ট ।।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১২, ২০০৯ (১১:০৮ পূর্বাহ্ণ)

হারাম এবং হালালের মাপকাঠি কি কেবল কোরান? হাদীস, এজমা এবং কিয়াসের প্রয়োজনীয়তা কী? যারা কেবল কোরানকেই শরীয়তে মাপকাঠি বানাতে চায় তাদের সম্যা কী বিষয়গুলোর আলোচনা করতে করতে হয়রান হয়ে যাচ্ছিলাম আশাকরি আয়াতগুলো অনেকের কাছেই পরিষ্কার :
১। «وما ينطق عن الهوى * إن هو إلا وحي يوحى» (النجم:3‚ 4) তিনি তার নিজের মনথেকে কথা বলেন না, কেবল ওহীই তিনি বর্ননা করেন।
রসূলের মুখ থেকে যে কথা বের হয়েছে তাকে যদি আমরা হাদীস বলি এবং হাদীসের উপোযগিতা এবং সত্যতার উপর অস্বীকার করি, তবে তিনি যেহেতু কোরানের আয়াত বলেছেন সেগুলোর সত্যতা নিয়েও কথা বলতে হবে, এবং শিয়াদের “ওহী” এবং কোরানের ব্যাপারে এমন বিশ্বাসও রয়েছে যে মুহাম্মদ স: এর কাছে যা যা নাজিল হয়েছে তিনি তা সঠিক ভাবে বর্ননা করেন নি- নাউজু বিল্লাহ-
এবার হাদীস অস্বীকার করা হলে, স্পস্টতই এবং যুক্তিগত ভাবেই কোরানকে অস্বীকার করতে হবে, কারন কোরানের বর্ননা, তারতীব, তাফরীক, ফাসাল এবং ক্রমধারা সবকিছুই হাদীস অবলম্বনে করা হয়েছে। কোনটি কোরান কোনটি হাদীস তাও রসূল স: এর বর্ননা অনুসারে পরিষ্কার করা হয়েছিল সুতারং কোরান হাদীস নির্ভর আর হাদীস অস্বীকার করে কোরানকেও অস্বীকার করা সহজ।
কোরান নামজের আচারণ কী হবে কোন কোন ওয়াক্তে হবে তার নির্দিষ্ট বর্ননা দেয়নি যদিও নামাজ কায়েমের হুকুম করেছে, যাকাতের নিসাব কী পরিমান হবে তার উল্লেখ করেনি যদিও জাকাত প্রদান করতে বলেছে, অতএব হাদীসের উপর নির্ভর করেই নামাজ- রোজা, হজ্ব, যাকাত সহ ইসলামের সকল প্রকার হুকুম আহকাম হাদীস এজমা এবং কিয়াসের মাধ্যমে পালন করা হয়, অতএব কোরান গান বাজনাকে সরাসরি হারাম উল্লেখ না করলেও হাদীসের মাধ্যমে আমরা এর হারামের সুস্পস্ট নির্দেশনা পাই ।.

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১২১ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)

১ টি মন্তব্য

  1. Musical Instrument হারাম হওয়া সম্পর্কে বিশটির মত এজমার উল্লেখ আছে :
    ১. الإجماع الأول: نَقَلَهُ وأَقَرَّهُ خامس الخلفاء الراشدين: عُمَرُ بنُ عَبْدِ العَزِيْزِ (وُلد 63هـ ) 0 ( رواه النسائي في سننه رقم 4135 بسند صحيح )ওমর বিন আব্দুল আজীজ রহ আলাইহের যূগে। নাসাঈ, সুনান অধ্যায় ৪১৩৫নং বর্ননা , সহীহ সনদ ।
    ২. الإجماع الثاني: وقع في عهدي عُمَرُ بنُ عَبْدِ العَزِيْزِ , وأَبِي عَمْرٍو الأَوْزَاعِيّ. ( رواه النسائي )
    الإجماع الثالث: نَقَلَهُ الإِمَامُ ابن جرير الطبري (وُلد 224هـ) 0 (تهذيب الآثار)
    الإجماع الرابع: نَقَلَهُ الإِمَامُ أَبُو بَكْرٍ الآجُرِّيُّ (وُلد نحو 280هـ)0 ( نزهة الأسماع في مسألة السماع ص25 )
    আবু আমর আল আওযায়ী, এবং ওমর বিন আব্দুল আজীয় রহ এর যূগে দ্বীতিয় বারের মত এজমা পোষণ হয় । নাসায়ী
    ৩. ইবনে জারীল রহ তৃতীয় এজমার বর্ননা করেছেন। তাহযীবুল আছার
    ৪. ইমাম আবু বকর আজুরী রহ চতুর্থ এজমার বর্ননা করেছেন। নুযযহাতুল আছমা ফী মাসআলাতিল ছিমা (গান বাজনা শুনা নিয়ে একটি গবেষনামুলক রচনা) পৃ২৫।
    ৫. الإجماع الخامس: نَقَلَهُ الإِمَامُ أَبُو الطَّيِّبِ الطَّبَرِيُّ (وُلد 348هـ) 0 ( نزهة الأسماع ص 62:64 )
    الإجماع السادس: نَقَلَهُ الإِمَامُ أَبُو الفَتْحِ سُلَيْمُ الرَّازِيُّ (وُلد قريبا من 360هـ) 0 ( كف الرعاع ص124 )
    আবু তাইয়্যেব আত তবারী ৩৪৮হি: নুযহাতূল আসমা ৬২/৬৪
    ৬. আবু ফুতহ সুলাইম আর রাযী, ৩৬০হি: কাফ্ফুর রুআ কিতবে ছয় নং এজমার বর্ননা এনেছেণ। পৃ১২৪ কাফ্ফুর রুআ।
    এভাবে মোট ২০টি এজমার বর্ননা এবং মূল কিতাবগুলোতে কোরান ও হাদীসের দলীলগুলো লিপিবন্ধ হয়েছে । সূত্র
    গান বাজনা নিয়ে হাদীসের সনদ এবং মাসায়েল নিয়ে আলবানী রহ এর বইটু খুবই গুরুত্ব পূর্ন তবে আরবীতে । লিঙ্ক থেকে আলবানী রহ এর সকল লেখা পাওয়া যাবে। تحريم آلات الطرب (17038 مرة): صيغة Chm – صيغة Exe লিংক এ তার তাহরীমু আলাতিত্বারব, বা মিউজিকাল ইনস্ট্রুমেন্ট হারাম হওয়ার সপক্ষে সহীহ, হাসান, মুত্তাফাক আলাইহে ইত্যাদি বিশদ বর্ণনা এসেছে।
    মুনিম ভাই আমার বোখারীর হাদীস নিয়ে আলোচনা করায় বিখ্যাত মুহাদ্দীস আলবানীর কথা টি টানতে হল।