লগইন রেজিস্ট্রেশন

ঈদুল ফিতরের পরে শাওয়ালের একটি পবিত্র সুন্নাহ(আসুন আমরা লাভবান হই)

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০০৯ (১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ)

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম ।
আল হামদুলিল্লাহ ওয়াসালাতু ওয়াস সালামু আলা রসুলিল্লাহ।
প্রিয় মুসলিম ভাই, আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে একটি মহাপবিত্র মাসের সিয়াম সাধনা করার তৌফিক দান করেছেন, অতপর শাওয়াল মাসপর্যন্ত হায়াত দারাজ করেছেন তাই আসুন আমরা আমাদেরপ্রতি আল্লাহর এই মহান অনুগ্রহের শুকরিয়া আদায় করি, দেখুন অনেক লোকই যারা আমাদের সাথে রমজানে রোজা রেখেছিল তারা আজ আর পৃথীবিতে নেই আর কখনো আসবে না, আমরাও জানি না কখন পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হবে । তাই আসুন আমরা এই হায়াতের সুব্যাবহার করি । রসুল স: এর বর্ণনা :”من صام رمضان ثم أتبعه بست من شوال كان كصيام الدهر” যে ব্যক্তি রমজানের রোজা রাখলো এবং শাওয়াল মাসে আরো অতিরিক্ত ছয়টি রোজা রাখবে সে যেন একযূগ(পূর্ণ এক বছরের) রোজা রাখল। ” মুসলিম ও অনান্য হাদীস গ্রন্থ। আমরা দুনিয়ার কোন টাকা পয়সা বা ব্যাবসা বানিজ্যে একটায় যদি লাভ হয় তাহলে আরেকটা তারপর আরেকটা এভাবে বাড়াতে থাকি, একটা বিল্ডিং থাকলে আরেকটা বানানোর ফিকির করি, একটা ব্যাবসা থাকলে আরেকটা খুলতে চেষ্টা করি অথচ এই দালান-কোঠায় আমরা চিরদিন থাকতে পারবো না । সুতরং আখেরাতের ক্ষেত্রে আমাদের অনুরুপ চিন্তা ফিকির ও প্রচেষ্টা করা উচিৎ করাণ আখেরাত চিরস্থায়ি দুনিয়া ধ্বংসশীল। আল্লাহ আমাকে ও প্রিয় পাঠক সহ সকলকে তৌফিক দান করুন ।
প্রাসাংঙ্গিক কিছু মাসলা: কেউ যদি রমজানের কোন রোজা না রেখে থাকে সে কি আগে সেই রোজার ক্বাজা আদায় করবে না ছয় রোজা আদায় করবে?
উত্তর : সে প্রথমে ছুটে যাওয়া ফরজ রোজা আদায় করবে তারপর ছয় রোজা (সুন্নত) আদায় করবে।
প্রশ্ন: কেউযদি এই রোজা রাখার নিয়্যত করে তারপর কোন কারনে রোজা ভংগ করে তবে পূনরায় তাকে ঐ রোজা আদায় করতে হবে ?
হ্যা নফল রোজার নিয়্যতে কেউ সেহরী খাওয়ার পর সেই রোজা ওয়াজিব হয়ে যায় কেবল ঐদিনের রোজাটা তাকে অবশ্যই পরে আদায় করে দিতে হবে?
আরো কেন প্রশ্ন থাকলে আমার কাছে ইমেইল করুন।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১১২ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)

৪ টি মন্তব্য

  1. Inshallah. May Allah give us the wisdom and strength and will to carry this out.

  2. ধন্যবাদ আপনার পোষ্টের জন্য। (F)

  3. আপনার পোষ্টটা অবশ্যই ভাল তার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তবে এই সব পোষ্ট গতানুগতিক। এই সব বিষয় নিয়ে আমাদের নায়েবে নবীরা হাটে ঘাটে বন্দরে ওয়াজ ফরমাইতে আছেন। আল্লাহ অনুগ্রহে আজ আমরা যে ইন্টারনেট নামক এক শক্তি শালী মিডিয়া পেয়েছি সে মিডিয়াকে জ্ঞান বিজ্ঞান চর্চায় লাগানো ফর্জ বলে আমি মনে করি। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে এই মিডিয়া আমাদের গ্রাম গঞ্জে ছড়িয়ে পড়বে। তখন রাস্তার ঐ ওয়াজ নছিয়ত কোন কাজে আসবে না। এখন থেকে ভার্চুয়ালী প্রিপারেশন নেওয়া দরকার। যাতে সে সব অবুঝ তরুণরা ইসলাম বিদ্বেশীদের ষড়যন্ত্রে প্রতারিত না হয়ে পড়ে। তাই বাংলা ভাষায় যুগজিজ্ঞাসার জবাব রেডি করে রাখতে হবে। বাংলায় সহজ ভাষায় কোরআন অনুবাদ, কোরানিক ব্যাকরণ, কোরআনে ব্যবহৃত শব্দের প্রয়োগিক অর্থ, আয়াত নাজিলের কারন ইত্যাদির ভান্ডার মওজুত করে এখনই রাখা দরকার। নতুবা একদিন বাংলাদেশে নামদারী মুসলমান ছাড়া আসল মুসলমান দেখতে পাবেন না। ধন্যবাদ।

  4. রসুল স: এর বর্ণনা :”من صام رمضان ثم أتبعه بست من شوال كان كصيام الدهر” যে ব্যক্তি রমজানের রোজা রাখলো এবং শাওয়াল মাসে আরো অতিরিক্ত ছয়টি রোজা রাখবে সে যেন একযূগ(পূর্ণ এক বছরের) রোজা রাখল

    মাশাআল্লাহ জনাব মুরতাহিল সাহেব। ভাল লাগল আপনার এই লেখাটি পড়ে। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে। তবে ইপরের একযূগ(পূর্ণ এক বছরের) এই কথাটা ঠিক বুঝতে পারলাম না। আমরা যানি এক যুগ ১২ বছরে হয়। পরে আবার লেখা হলো পুর্ণ এক বছরের। তাহলে সঠিক কোনটা, এক বছরের ছওয়াব হবে নাকি এক যুগ তথা ১২ বছরের ছওয়াব হবে। ধন্যবাদ আপানাকে।