লগইন রেজিস্ট্রেশন

আল্লাহর নামে যিকির করার ফযীলত

লিখেছেন: ' আল্লাহর-বান্দা' @ সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১১ (১০:০০ পূর্বাহ্ণ)

হযরত আবু হুরাইরা (রাঃ) থেকে বর্ণিত।তিনি বলেন,
রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেছেন, আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে একদল ফেরেশতা(নিয়জিত) আছে – যারা আল্লাহর স্মরণে রত লোকদের খোঁজে পথে পথে ঘুরে বেড়ায়।যখন তারা আল্লাহর যিকিরে মগ্ন লোকদের দেখতে পায়, তখন একজন আর একজনকে ডাকাডাকি করে বলে, স্ব স্ব দায়িত্ব পালনে একদিকে চলে আসো।রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, তখন সেই ফেরেশতারা নিজেদের পাখা দিয়ে এ লোকদেরকে ঘিরে ফেলে এবং এভাবে তাদেরকে ঘিরতে ঘিরতে ফেরেশতাদের স্তর আসমান পর্যন্ত পৌছে যায়।রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, তখন ফেরেস্তাদের রব তাদেরকে জিজ্ঞাস করেন, আমার এই বান্দারা কি বলছে? অথচ এটা ফেরেশতাদের তুলনায় তিনিই অধিক অবগত।ফেরেশতারা জবাব দেয়, তারা আপনার পবিত্রতা বর্ণনা করছে,আপনার শ্রেষ্ঠত্ব বর্ণনা করছে।আপনার গুণ ও প্রশংসা করছে এবং আপনার মাহাত্ন্য বর্ণনা করছে।রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, তখন আল্লাহ তাদেরকে জিজ্ঞাস করেন, তারা কি আমাকে দেখেছে? তারা বলে, না।আল্লাহর শপথ তারা আপনাকে কখনও দেখে নি।রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, আল্লাহ তাদের জিজ্ঞাস করেন, তারা যদি আমাকে দেখত তা হলে কি করত? ফেরেশতারা বলে, তারা আপনাকে দেখলে আপনার আরও বেশি পবিত্রতা ঘোষনা করত।

রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, আল্লাহ তায়ালা তাদের পুনরায় জিজ্ঞেস করেন, তারা আমার নিকট কি চায়?ফেরেশতারা উত্তরে বলেন, তারা আপনার নিকট জান্নাত পেতে চায়।রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, আল্লার তায়ালা তাদের জিজ্ঞেস করেন, তারা কি তা দেখেছে? ফেরেশতারা উত্তরে, না।আল্লাহর শপথ, হে আমাদের রব ! তারা তা দেখেনি।আল্লাহ তায়ালা তাদের জিজ্ঞেস করেন, যদি জান্নাত দেখত, তবে তারা কিরুপ করত?ফেরেশতার বলেন,যদি তারা জান্নাত দেখত, তবে আরও তীব্র আকাঙ্ক্ষী হত, আরও বেশি আকাঙ্ক্ষা করত এবং তা পাওয়ার আগ্রহ তাদের অধিক বেড়ে যেত।
রাসূলুল্লাহ (সঃ) উল্লেখ করেন, তখন আল্লাহ তায়ালা ফেরেশতাদেরকে বলেন, তোমরা সাক্ষী থাক, আমি তাদের সকলকে মাফ করে দিলাম।রাসূলুল্লাহ (সঃ)বলেন, এ ফেরেশতাদের একজন বলে, এ লোকদের মাঝে এমন এক ব্যক্তি আছে, যে ঐ যিকিরকারীদের মাঝে সামিল নয়।অন্য কোন উদ্দেশ্য ও প্রয়োজনে সে(ঐ স্হানে এসেছিল)।আল্লাহ তায়ালা বলেন, এ মজলিসের লোকরা এত মর্যাদাবান যে, তাদের সাথে যারা বসে তারাও বঞ্ছিত হয় না।(সহী বুখারী)

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১৫৭ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (ভোট, গড়: ৫.০০)

৩ টি মন্তব্য

  1. সুবহানাল্লাহ। আল্লাহ তায়ালা আমাদের তাওফিক দান করূন। (আমীন)

  2. Allahu Akbar, Allah Rahman, Allah sobkisu paren. Arokom mojlishy jabar taufiq dan korun.

  3. আপনাকে ধন্যবাদ। তখন আল্লাহ তায়ালা ফেরেশতাদেরকে বলেন, তোমরা সাক্ষী থাক, আমি তাদের সকলকে মাফ করে দিলামমহান আল্লাহ আমাদেরকে ক্ষমার অন্তরভূক্ত করূন।