লগইন রেজিস্ট্রেশন

লেখক আর্কাইভ

 

লিবিয়ায় যা চলছে।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ মঙ্গলবার, মার্চ ৮, ২০১১ (৫:৫৩ অপরাহ্ণ)

মুয়াম্মার কাযাফী কখনোই পশ্চিমাদের খুব কাছের নয় যেমনটি গতানুগতিক অন্য আরব শাষকরা, কিন্তু যখনই বিদ্রোহ শুরু হলো তখন শুনাগেল নুতন রব। ঠিক কি যে চলছে লিবিয়াতে তা মিডিয়া হয়তো পরিষ্কার বলছে না নয়তো বলার সুযোগ পাচ্ছে না। হতাহত ও নিহতের সঠিক সংখ্যা কারো জানা নেই, কে শত্রু কে মিত্র তাও অস্পষ্ট। মধ্য থেকে যুদ্ধবাজ এমেরিকা যুদ্ধজাহাজ ও বহুজাতিক সৈন্য মোতায়ন করতে যাচ্ছে, খেল ভালই জমবে তাতে। কারন কাযাফি যেমনটি ট্রয়াল করতে চেয়েছিলেন ওয়েস্টার্নদের সেভাবে তারা কুপোকাত হয়নি, বরং হৈচৈ ফেলে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বিদ্রোহ, অভ্যূত্থান ও গনতান্ত্রিক চর্চায় সৌদি ধর্মীয় ডকট্রিন কতটুকো কাজ করবে? আমাদের সালাফীরা কি বলেন দেখা যাক।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ সোমবার, মার্চ ৭, ২০১১ (৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ)

সৌদিয়ার মামলাকাহ বা কিংডোমের পোষ্য আলেমগন গতকাল যে যৌথ ফতোয়াটি সরকারি নির্দেশে প্রকাশ করেছেন তার মূল ভাষ্য হলো রাজার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা ইসলাম সম্মত নয়, ইতিপূর্বে জামাতীদের ধুয়ে মুসে সাফ সাফ বাংলা লেকচারো দিয়েছিলেন পৌষ্য আলেমদের জনকরা। খুব মনে পড়ে শেখ আব্দুল মতীন সালাফীর লেকচারের কথা যেখানে সাঈদীকে খুব ধুযে মুছে দেয়া হয়েছিল রাজতান্ত্রিক ব্যাবস্থাপনার সমালোচনা করায়। সে প্রসংঙ্গ থাক এবার কাজের কথায় আসি।
আরব বিশ্বের প্রায় সবকটি রাস্ট্রই রাজতান্ত্রিক, নামের প্রজাতান্ত্রিক দেশ যেমন মিশর-তিউনিস-আলজেরিয়া-ইরাক এগুলোও মুলত অঘোষিত রাজতান্ত্রিক নিয়মে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ভাল লাগা শেয়ার করলাম ।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১১ (১২:১১ অপরাহ্ণ)

Islam VS Terrorism.
আমার প্রিয় ব্যাক্তিত্ব ।

! রিপোর্ট করুন ! .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

১ম রবিউল মাসের সুন্নাহ ও বিদাআহ ।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১১ (৩:২২ অপরাহ্ণ)

ইতিপূর্বে রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জন্মক্ষন সম্পৃক্ত ঐতিহাসিক বিশ্লেষন থেকে যা প্রতীয়মান হলো যে, রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জন্মক্ষন নিয়ে ঐতিহাসিক গ্রহনযোগ্য ইখতিলাফ থাকায় তার জন্মকাল সম্পর্কে সুনির্দিস্ট সময় নির্নয় করা সম্ভব হয় না; অপর দিকে তার গুরুত্বপূর্ন জীবন ও নবুয়্যত পরবর্তী গুরুত্বের কারনেই ঐতিহাসিকভাবে তার মৃত্যুর সময়-কাল কোনপ্রকার ইখতিলাফ ও মতানৈক্য ব্যতিতই স্বীকৃত। তথাপি আমরা পূর্বেল্লেখিত ঐতিহাসিক গ্রন্থ আল বিদায়াহ ওয়ান নিহাইয়াহ থেকে রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের মৃত্যক্ষন নিয়ে আলোচনা করবো।
ইবনে কাসীর (রহ:) লিখেন .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

রবিউল আউয়ালের বিদাত ও সুন্নাহ ।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১১ (৯:১৯ পূর্বাহ্ণ)

রবিউল আউয়াল মাসটি ইসলামী বিশ্বে একটি গুরুত্বপূর্ন সময়। এ মাসেই রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহেস্সালাম জন্মগ্রহণ ও মৃত্যুবরণ করেছেন। ঐতিহাসিকদের কিছু লেখা থেকে রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহেস্সালাম এর জন্ম বিবরণ: এখানে স্পষ্টভাবে জেনে রাখা উচিত এবং সতর্ক হওয়ার বিষয় যে রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহেস্সালাম এর জন্ম কোরাইশের কিংবা আরবের কাছে স্বাভাবিক দৃস্টিতে গুরুত্বপূর্ন ছিল না, আর এর প্রমান হলো তার জন্মের দিনক্ষন সম্পর্কে ঐতিহাসিক ইখতেলাফ। নির্ভরযোগ্য ঐতিহাসিক তাফসিরে ইবনে কাসীর প্রনেতার কিতাব আলবিদায়াহ ওয়ান নিহায়াহ থেকে রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহেস্সালাম এর জন্মের দিন সম্বন্ধে ইখতেলাফগুলো .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

এ তুফান ভারি, দিতে হবে পাড়ি ……। ইয়াছমিন ঝড় নয়; সেক্যুলরদের কবর রচনা।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ রবিবার, জানুয়ারি ৩০, ২০১১ (৩:২৩ অপরাহ্ণ)

সাম্প্রাতিক তিউনিসিয়ার বেন আলীর কড়া সেক্যুলরিজমের প্রকাশ করেছে বি-বি-সির এই প্রতিবেদন। সমমনা ফারাওপন্থী মিশরেও লেগেছে হাওয়া, ধারনা করা হচ্ছে বাতাস সমানতালে আঘাত হানবে সব সেক্যুলর শাষকদের শিবিরেই। এ ক্ষেত্রে তাদের সাবধান হয়ে শুধরে যাওয়া কিংবা পলায়ন করা ছাড়া গতান্তর নেই, মিশরের মোবারক গভমেন্টের ধ্বজ্বা মাটিতে পদানত হবার পথে, কারজাভী সাহেব পরামর্শ দিয়েছেন প্রেসিডেন্টকে পদত্যাগ ও দেশান্তরের। আমাদের দেশের সেক্যুলরদের বুঝা উচিত এখানেও ৯০% মানুষের ধর্মীয় পরিচয় ও স্বার্থ ও স্বাধীকারের বিরোধীতা করে জায়ন-পৌত্তলিকদের স্বার্থে নাচার পরিনাম কখনোই .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

অনুকরণে শীর্ষে যারা: হযরত আবু বকর সিদ্দীক রদিয়াল্লাহ ও আরদ্বহ ।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ শুক্রবার, জানুয়ারি ২১, ২০১১ (১২:৪৭ অপরাহ্ণ)

হযরত আবু বকর (রযি:)এর মানবিকগুনাবলি ও ইসলামের চরম মুহুর্তে তার অবদান:

নিসন্দেহে বড়-বড় নবী -রসূলদের জন্য কিছু হাওয়ারী বা সতীর্থ ছিল যারা নবীদের দীক্ষাকে অনুকরণ করে নিজেরাও হয়েছিলেন অনুকরনীয়। মহান আল্লহ তা’‌লা সাহাবাদের অনুকরণের প্রসংঙ্গে বলেন ” হে ঈমানদার গন তোমরা ইমান আনয়ন করো আল্লাহর প্রতি, তার রসূলের প্রতি..” ঈমান ও ইসলামের সঠিক মাপকাঠি হলেন সাহাবাগন। কারণ ইসলাম প্রবর্তন ও পালনের প্রথম ধাপ শুরু হয় এই মহান গোষ্ঠীর অনুকরনের মাধ্যমে। “যখন তাদের বলা হয়, তোমরা ঈমান আনয়ন করো যেভাবে লোকেরা ঈমান .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ইরতেদাদের যৌক্তিক অগ্রহনযোগ্যতা ও বাকস্বাধীনতার বাস্তবতা।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ শুক্রবার, জানুয়ারি ১৪, ২০১১ (১২:৫১ পূর্বাহ্ণ)

ইসলামের প্রতি জঘন্যতম বিপত্তির অন্যতম হলো মুরতাদদের ফাসীঁ প্রদান বা কতল করন। যা কিনা রাস্ট্রীয় ব্যবস্থাপনায় বাকস্বাধীনতার প্রতি হস্তক্ষেপের নামন্তর কিন্তু কিছুটা ভিতরে গিয়ে বিষয়টি দেখা উচিৎ মানবতাবাদীদের । ইতিপূর্বে এ ধরনের হত্যার যৌক্তিকতার ব্যাপারে কথা হয়েছে। এর বিপরীত দিক থেকে ইসলামের মূল লজিক এবং ঐতিহাসিক দিক থেকে কিংবা পৃথীবির অন্যান সমাজে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার একটি তুলনামুলক আলোচনা করা যাক যাতে এই স্বাধীনতার অধিকার মানুষের পক্ষে অর্জিত হয়।

প্রথমত বাকস্বাধীনতার স্বরুপ বুঝে আসতে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

আল কোরানের আলোক বর্তিকা (৭) কোরানের মুজেযা কি কেবল সাহিত্যগত দিক থেকে? না বিজ্ঞানগত দিক থেকেও। ?

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ বুধবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১০ (৭:৩২ পূর্বাহ্ণ)

ওলামাদের একদল কোরানের মুজেযাকে কেবল তার সাহিত্য- ও সাবলীলতার জন্যই মনে করেন, অপরদল এ কোরানের পূর্ববর্তি ইতিহাসের অনুপম বর্ণনা ও পরবর্তি সময়ের বাস্তবিক বর্ননাকেও মুজেযা মনে করেন। অপর আরেকটি দল এই কোরানের হুকুম আহকাম ও তাশরীয়াত ও জীবন নির্দেশিকাকেও মুজেযা মনে করেন। আবার কেহ কেহ এই কোরানের অনুপম বিন্যাশ, সূরা ও আয়াতের আশ্চর্য্যজনক যোগফলকেও মুজেযা মনে করেন । আবার অনেকে কোরানে বর্নিত অনেক জ্ঞানের বিস্তৃতিকেও মুজেযা মনে করেন। এভাবে চল্লিশটির মতো বিষয় বিভিন্ন আলেমগন অনুধাবন করেছেন যা অন্য কোন কিতাবে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

আল কোরানের আলোক বর্তিকা (৬) মুজেযা ও কোরান ।

লিখেছেন: ' আল মাহমুদ' @ সোমবার, ডিসেম্বর ৬, ২০১০ (১২:৪০ পূর্বাহ্ণ)

পূর্ব কলাম স্বভাব বিরুদ্ধ বিষয়াবলীর প্রকারভেদ :
এখানে বলে রাখা ভাল যে, ইসলামী স্কলারগন বিশেষত ইমার রাজী সহ অন্যান ফালাসাফী ইমামগন unnecessary Irregular স্বভাব বিরুদ্ধ বিষয়াবলীকে দুই ভাগে ও ৭টি শ্রেনীতে ভাগ করেছেন, যথা :
(ক) এ প্রকারগুলো মুসলিমদের জন্য:
১। ‘ইরহাস’ বা নবীদের জন্মের আগে পৃথীবিতে যে অস্বাভাবিক বিষয় প্রকিতির নিয়ম বহির্ভূত বিষয় ঘটে যেত, যেমন নবী স: এর জন্মের আগে কিসরা কায়সার ও রোম দরবারের ভুকম্পন, ( অথচ অন্য কোন দালানের ক্ষতি সাধন হয়নি .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>