লগইন রেজিস্ট্রেশন

লেখক আর্কাইভ

 

আমি শায়েখ আব্দুর রহমান হলে তুমি কালা জাহাঙ্গীর!‎

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ শুক্রবার, জুন ১০, ২০১১ (৪:৩২ অপরাহ্ণ)

২০০৫ সাল। চার দলীয় জোটের দু:সহ শাসনামল। ৬৩ টি জেলায় সিরিজ বোমা হামলা করেছে ইহুদী ‎খৃষ্টানদের দোসর জেএমবি সন্ত্রাসীরা। সাম্রাজ্যবাদের মিশন বাস্তবায়নকারীরা মুসলিম প্রধান বাংলাদেশের ‎সাধারণ মুসলমানদের রক্তে আঁকতে চায় সাম্রাজ্যবাদের মানচিত্র। জনপদের পর জনপদ কেঁপে উঠে ‎বোমার বিধ্বংসী উল্লাসে। শান্তির ধর্ম ইসলামকে সন্ত্রাসী রুপে উপস্থাপিত করতে এক ভয়ংকর ষড়যন্ত্রে ‎মেতে উঠে এই জঙ্গীগোষ্ঠি। কুরআনের অসংখ্য আয়াতে বর্ণিত সন্ত্রাস নির্মুলের হাতিয়ার ইসলামের পবিত্র ‎বিধান জিহাদকে উপস্থাপন করে এই ভয়ংকর সন্ত্রাসীরা সন্ত্রাসের এক ঘৃণ্য চিত্রে। সাম্রাজ্যবাদ খৃষ্টানদের ‎এই দালালরা সাধারণ মুসলমান .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

তালাক একটি অভিশাপঃ একটি অপপ্রচার

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ বুধবার, জুন ৮, ২০১১ (১১:৪০ পূর্বাহ্ণ)

আমরা মুসলমান। পৈত্রিক সূত্রে মুসলমান। বাবা-মা মুসলমান, তাই আমিও মুসলমান। কিন্তু অনেকেই ‎জানেনা মুসলমানিত্বের প্রকৃত মর্ম। ইসলামী রীতিনীতি তাই অনেক সময় আমাদের পথের কাঁটা হয়ে ‎দাঁড়ায়। যেমন “তালাক”। ‎

আমরা মুসলমান বলেই ধর্মীয় কিছু বিষয় মানতে আমরা একান্ত বাধ্য। যেমন-ছেলেদের খাৎনা করানো, ‎বিয়ের সময় দু’জন স্বাক্ষ্য রাখা, মৃত্যুর সময় ইসলামী শরীয়ত মোতাবিক কাফন দাফন ইত্যাদী। যেগুলো ‎সারা জীবন ধর্মীয় বিষয় নিয়ে নাক সিটকালেও আমরা করে থাকি বা করতে বাধ্য হই। এমনি একটি বিষয় ‎হল “স্ত্রীকে তিনি তালাক দিলে তাকে আর রাখা .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

হায়রে শহীদেরা!!

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ রবিবার, জুন ৫, ২০১১ (৮:৩৬ পূর্বাহ্ণ)

দুর্ভাগা আমি। স্বাধীনতা সংগ্রাম দেখিনি। দেখিনি স্বাধীনতার জন্য পাগল আমাদের পূর্বসূরীদের টগবগে যৌবনের ‎বীরত্বপূর্ণ আত্মত্যাগ। দেখিনি পাকিস্তানী হায়েনাদের নির্মমতা। আমাদের মা-বোনের গগনবিদায়ী ‎আর্তনাদ। দেখিনি বাংলাদেশের স্থপতি শেখ মুজিবুর রহমানের দীপ্ত ভাষণ। শুনিনি কালুর ঘাট বেতার ‎কেন্দ্র থেকে প্রচারিত শেখ মুজিব স্বাক্ষরিত স্বাধীনতার ঘোষণা জিয়ার প্রদীপ্ত কণ্ঠে। হায়েনা গাদ্দার ‎রাজাকার আল বদর আল শামছের নিষ্ঠুরতা। দেখিনি সন্তান হারানো দুঃখিনী মায়ের শেষ রাতের অঝর ‎ক্রন্দন। আল্লাহর আরশও কেঁপে যেতো যেই কান্নার তীব্রতায়। দেখিনি রক্তের হোলি খেলায় মত্ত পাক নরপশুদের উদ্দাম উল্লাস। দেশীয় .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ওশর ও খারাজের বিধান – প্রেক্ষিত বাংলাদেশ

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ শুক্রবার, জুন ৩, ২০১১ (১১:৩৯ অপরাহ্ণ)

ওশরের পরিচয় :

عشر শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো جزء واحد من العشرة বা এক দশমাংশ। (হাশিয়ায়ে হিদায়া-আব্দুল হাই লাখনবি রহ.: ২/৫৭০)

পরিভাষায় عشر বলা হয় – احد اجزاء العشرة او نصفه يؤخذ من الارض العشرية (قواعد الفقه لعميم الاحسان/379)

সহজ ভাষায় ওশরী জমিনে উৎপাদিত শস্যের এক দশমাংস বা তার অর্ধেক গ্রহণ করাকে عشر বলা হয়।

عشر এর প্রমাণ :

কুরআন, হাদীস ও ইজমা ও আকলী দলীল দ্বারা ওশর প্রমাণিত।

কুরআনের দলীল :

.....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

দফ বাজানোর শরয়ী বিধান

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ বৃহস্পতিবার, জুন ২, ২০১১ (১২:২৫ অপরাহ্ণ)

দফের পরিচয় :

الدف : بضم الدال ، آلة من آلات الموسيقى مستدبرة كالغربال ليس لها جلاجل يشد الجلد من أحد طرفيها)(الدف) الجنب من كمعجم لغة الفقهاء – ج 1 / ص 251

অর্থাৎ দফ বলা হয় ঐ বাদ্য যন্ত্রকে যার উপরের অংশ চালুনির মত, যাতে ঘন্টির মত আওয়াজ নেই, আর তার একাংশে থাকবে চামড়ার পর্দা।

তাফসীর গ্রন্থে দফের বিধান।

)1(حدثنا هلال بن أبي هلال، عن عطاء بن يسار، عن عبد الله بن عمرو قال: إن هذه الآية التي في القرآن: { يَا أَيُّهَا .....

১০ টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

‎“ফতোয়া” অপপ্রচারের শিকার এক মজলুম ইসলামী শব্দ

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ মঙ্গলবার, মে ৩১, ২০১১ (১১:০২ অপরাহ্ণ)

ফতোয়া কী?‎
ফতোয়া হল একটি আরবী শব্দ। যা কুরআন সুন্নাহ তথা ইসলামী শরীয়তের একটি মর্যাদাপূর্ণ পরিভাষা। ‎দ্বীন-ধর্ম সম্পর্কে জিজ্ঞাসার পর একজন দ্বীন ইসলাম সম্পর্কে প্রাজ্ঞ মুফতী কুরআন-হাদীস ও ইসলামী আইন ‎শাস্ত্র অনুযায়ী যেই সমাধান দেন তাই “ফতোয়া”। ইসলামী বিধান বর্ণনাকারীকে বলে “মুফতী” আর যে ‎সকল প্রতিষ্ঠান এই দায়িত্ব পালন করেন তাকে বলে “দারুল ইফতা”।

ফতোয়ার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা
ফতোয়ার উল্লেখিত সংজ্ঞা দ্বারা সহজেই অনুমেয় মুসলমানদের জন্য ফতোয়া কী পরিমাণ আবশ্যকীয় বিষয়। ‎আমরা যেহেতো বিশ্বাস করি আমরা দুনিয়াতে থাকার জন্য কেউ আসিনি। .....

১৪ টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

সারা পৃথিবীতে একই সময়ে ঈদ: দাবী ও বাস্তবতা

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ মঙ্গলবার, মে ৩১, ২০১১ (১:৩৮ অপরাহ্ণ)

ভুমিকা

চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল ইসলামের অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিধানাবলী। রোজা, ঈদ, কুরবানীসহ হজ্বের মত ইসলামের মৌলিক বিষয়াবলী। সুতরাং চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে পরিস্কার ধারণা না থাকলে এই সকল বিষয়ে সমস্যা হতে বাধ্য। সুতরাং প্রতিটি মুসলমানের এ বিষয়ে পরিচ্ছন্ন জ্ঞান থাকা আবশ্যক। ইসলাম একটি সার্বজনীন ধর্ম। গোটা পৃথিবীর সকল অঞ্চলের বিগত-আগত ও অনাগত সকল মানুষের জন্য কার্যকরী “স্রষ্টা” কর্তৃক নির্ধারিত একটি জীবন ব্যবস্থা।

ইসলাম কোন ভৌগলিক সীমারেখায় সীমাবদ্ধ ধর্ম নয়, ইসলাম ধর্মকে সার্বজনীন আখ্যা দিয়ে পবিত্র কুর’আনে ইরশাদ হচ্ছে- { وَمَا أَرْسَلْنَاكَ إِلا كَافَّةً .....

১৬ টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ইভ টিজিং না লিলিথ টিজিং?‎

লিখেছেন: ' লুৎফর ফরাজী' @ মঙ্গলবার, মে ৩১, ২০১১ (১:৩৬ অপরাহ্ণ)

ইভ মানে কী? টিজ শব্দটা ইংরেজী, যার অর্থ হল-বিরক্ত করা, জ্বালাতন করা, নির্যাতন করা ইত্যাদি। কিন্তু ‎ইভ মানে কী? এটা ইংরেজী শব্দ না, এটা হিব্রু শব্দ। যা মূলত নেয়া হয়েছে খৃষ্টানদের বাইবেল ও ‎ইহুদিদের পুরাণে বর্ণিত আদি মানব সৃষ্টির গল্প থেকে।

যতটুকু জানা যায় আল্লাহ প্রথমে এডামকে (আদম আ:) সৃষ্টি করার পর তার জন্য একজন সঙ্গিনী সৃষ্টি ‎করলেন যার নাম ছিল “লিলিথ”। লিলিথ ছিল উগ্রপন্থী, স্বামীর কথা শুনত না, যৌনতার ক্ষেত্রেও সে ছিল ‎বিকৃত মানসিকতার স্বীকার। বলা হয় সে রাগ করে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>