লগইন রেজিস্ট্রেশন

আমরা কেন কোরান পড়ি, এমনকি যদিও আমরা কোরানের এক একটি আরবী শব্দও বুঝতে পারি না?

লিখেছেন: ' বেদুইন' @ শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১০ (৪:৫৯ অপরাহ্ণ)

একজন বৃদ্ধ আমেরিকান মুসলিম তার নাতির সঙ্গে পূর্ব কেন্টাকির পর্বতে একটি খামারে বসবাস করত। প্রত্যেক প্রভাতে বৃদ্ধ মুসলিমটি খুব ভোরে উঠে রান্নাঘরের টেবিলে বসে কোরান তেলাওয়াত করতো। তার নাতিও সর্বদা তার মতো হতে চাইতো এবং সর্বদা তার অনুকরণ করতে চাইতো।

একটি দিন নাতি জিজ্ঞাসা করল, ” দাদা ! আমি আপনার মত কোরান পড়তে চেষ্টা করি, কিন্তু আমি কি পড়ছি তার বেশীরভাগই বুঝিনা, এবং আমি যতটুকুই বুঝি তা কোরান বন্ধ করার পর শীঘ্রই ভূলে যাই। তাহলে কোরান পড়ে আমার কি ভাল হল?”

চুল্লিতে কয়লা তোলা বন্ধ করে দাদা বলল, “এই কয়লার ঝুড়িটি নিয়ে নদীতে যাও এবং দয়াকরে আমার জন্য এটা ভর্তি করে পানি নিয়ে আস।”

দাদা যা বললো নাতী তাই করলো, কিন্তু নাতি ঘরে ফেরার পূর্বেই সব পানি ঝুড়ির ফাঁক দিয়ে বের হয়ে গেল। দাদা মুচকি হাসলো এবং বললো ” তোমাকে এবার একটু দ্রুত দৌড়ে চলতে হবে” বলে তাকে আবার নদীতে পাঠিয়ে দিল। এবার ছেলেটি দ্রুত দৌড়াতে লাগলো, কিন্তু এবারও ঘরে ফেরার পূর্বেই তার ঝুরিটি খালি হয়ে গেল। দীর্ঘশ্বাস ফেলতে ফেলতে ছেলেটি তার দাদাকে বলল যে, ঝুড়িতে করে পানি আনা অসম্ভব একটি কাজ এবং সে এবার একটি বালতি আনতে গেল।

বৃদ্ধ লোকটি বলল ” আমি এক বালতি পানি চাই না, আমি এক ঝুড়ি পানি চাই, তুমি একান্তভাবে চেষ্টা করছো না।” অতঃপর বৃদ্ধটি দরজা দিয়ে বের হয়ে তার নাতির চেষ্টা করছে, তা দেখতে থাকলো।

যদিও এই মুহূর্তে ছেলেটি জানে যে এটা একটা অসম্ভব কাজ, তবুও সে তার দাদাকে দেখানোর জন্য খুব দ্রুত দৌড়ে ঝুড়ি থেকে সব পানি পড়ে যাবার আগেই ঘরে ফেরার আপ্রান্ত চেষ্টা করতে থাকে। একপর্যায়ে ছেলেটি হাফাতে হাফাতে বলল ” দাদা, এটা একটা অর্থহীন প্রচেষ্টা”।
“তাহলে তুমি মনে কর, এটা একটি অর্থহীন প্রচেষ্টা”, বৃদ্ধটি বলল ” তকিয়ে দেখ তোমার ঝুড়ির দিকে।”

ছেলেটি ঝুড়ির দিকে তাকাল এবং প্রথমবারের মত সে বুঝতে পারলো যে ঝুড়িটি অন্য রকম লাগছে। এটা একটা নোংরা পুরনো কয়লার ঝুরি থেকে এখন একটা ভেতরে ও বাইরের পরিচ্ছন্ন ঝুড়িতে রূপান্তরিত হয়েছে।

বৃদ্ধটি বলল, “বেটা, যখন তুমি কোরান পড় তখন এমনই ঘটে। যদিও তুমি অনেক কিছুই বুঝনা, অনেক কিছুই মনে রাখতে পার না, কিন্তু যখন তুমি কোরান পড়বে তখন তোমার মধ্যে পরিবর্তন আসবে, পরিবর্তন আসবে তোমার ভিতরে ও বাহিরে। সেটা হল, জীবনের সকল কর্মে আল্লাহর নির্দেশ মেনে চলা।”

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
৩০৮ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (ভোট, গড়: ৩.৬৭)

১৩ টি মন্তব্য

  1. দারুন শিক্ষনীয় পোষ্ট। ধন্যবাদ।

  2. আসসালামু আলাইকুম,
    চমৎকার।

  3. বৃদ্ধটি বলল, “বেটা, যখন তুমি কোরান পড় তখন এমনই ঘটে। যদিও তুমি অনেক কিছুই বুঝনা, অনেক কিছুই মনে রাখতে পার না, কিন্তু যখন তুমি কোরান পড়বে তখন তোমার মধ্যে পরিবর্তন আসবে, পরিবর্তন আসবে তোমার ভিতরে ও বাহিরে। সেটা হল, জীবনের সকল কর্মে আল্লাহর নির্দেশ মেনে চলা

    খুবই শিক্ষনীয় একটি পোস্ট । হাদিস শরীফ দ্বারা প্রমানিত না বুঝে কোরআন পড়লেও আল্লাহর সন্তুষ্টি পাওয়া যাবে ।

    দ্য মুসলিম

    @হাফিজ,

    অনেকেই এই বিষয়টিকে অনেক ঘোলাটে করে প্রচার করে।
    হাদিস শরীফ দ্বারা প্রমানিত না বুঝে কোরআন পড়লেও আল্লাহর সন্তুষ্টি পাওয়া যাবে । সহমত।

  4. সুন্দর দৃষ্টান্ত! ধন্যবাদ।
    রাসুল পাক (সঃ) বলেন “নিশ্চয়ই ক্বলব সমুহে মরিচা পড়ে। যেমন ভাবে লোহার মধ্যে পানি লাগলে মরিচা পড়ে। তখন সাহাবায়ে কেরাম (রঃ) বললেন হে আল্লাহর রসুল (সাঃ) এটা পরিস্কার করার উপায় কি? জবাবে রাসুল পাক (সঃ) বললেন মৃত্যুকে খুব বেশী বেশী স্মরণ করা আর কোরান তেলওয়াত করা”

  5. আসসালামু আলাইকুম। আল্লাহ আপনাদের সবাইকে উত্তম প্রতিদান দিন।কিন্তু ভুলে গেলে চলবেনা আমরা কেবল না বুঝে পড়ে জীবন পার করে দিবনা। পবিত্র কোরান কে আমাদের জীবনে ধারণ ও করতে হবে।
    যখন তুমি কোরান পড়বে তখন তোমার মধ্যে পরিবর্তন আসবে, পরিবর্তন আসবে তোমার ভিতরে ও বাহিরে। সেটা হল, জীবনের সকল কর্মে আল্লাহর নির্দেশ মেনে চলা
    এই পরিবর্তন চাইলে আমাদের অবশ্য ই বুঝতে হবে । মনে রাখতে হবে কোরান না বুঝে পড়া একটি নফল ইবাদত আর কোরান এ বর্ণিত হুকুম আহকামগুলো জীবনে ধারন করা অবশ্য কর্তব্য। আল্লাহ আমাকে এর উপর আমল করার তৌফিক দিন।আপনাদের কেও তৌফিক দিন।

    দ্য মুসলিম

    @Abu Aaisha,

    সহমত।
    কোরানকে অবশ্যই বুঝে পড়ার চেষ্টা করতে হবে। কিন্তু একথা বলে আবার কোরআন তেলাওয়াতকে অর্থহীন সাব্যস্ত করা যাবেনা। বর্তমান সমাজের অনেক আলেম বলে থাকেন যে, কোরান তেলাওয়াত করে কোন লাভ নাই। অর্থ না বুঝে পড়লে কোন সওয়াব নাই। ধন্যবাদ।

    হাফিজ

    @দ্য মুসলিম, জ্বী এটাই পারফেক্ট কমেন্ট ।

    বর্তমান সমাজের অনেক আলেম বলে থাকেন যে, কোরান তেলাওয়াত করে কোন লাভ নাই।

    যারা বলে থাকে তারা অবশ্য আলেম না , কিছু মডারেট মুসলিম । সারা জীবন কেমিস্ট্রি , ম্যাথ নিয়ে গবেষনা করে হঠাৎ ইসলামের দিকে দৃষ্টি দিয়ে তারা এই সব কমেন্ট করে থাকে ।

    হাফিজ

    @Abu Aaisha, জ্বী এব্যাপারে আমার কোনো আপত্তি নেই ।

    Shahin Chishte

    @Abu Aaisha, সহমত।

  6. যারা বলেন, কোরান না বুঝে পড়ে লাভ নেই তারাও ভুল বলেন এবং যারা বলেন সারা জীবন কেবল না বুঝে পড়ে গেলেও সমস্যা নেই তারাও ভুল বলেন। আমাদের কোরান পাঠ ও করতে হবে এবং তাকে জীবনে ধারণ ও করতে হবে। অবশ্য সবাই একটা বিষয় জানেন কিনা জানিনা? তেলাওয়াত শব্দের অর্থ কিন্তু বুঝে পড়া। আল্লাহ আমাকে এর উপর আমল করার তৌফিক দিন।আপনাদের কেও তৌফিক দিন।

  7. কোরআন তেলওয়াত করা আর কোরআনের অর্থ বুঝে পড়া দুটি আলাদা জিনিস। কোরআনের অর্থ বুঝে পড়তে হবে ব্যক্তিগত জীবন আর সমাজে প্রয়োগ করার জন্য। কোরআনের অর্থ না বুঝলে তো আর বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করা সম্ভব না! অন্যদিকে যারা আরবীতে এক্সপার্ট তাদের কথা আলাদা তবে স্রেফ কোরআন তেলওয়াত অর্থ না বুঝে পড়লে বা শুনলেও আলাদা একটা অনুভূতি বা মানসিক শান্তি পাওয়া যায়। নীচের লিঙ্ক থেকে সূরা আর-রাহমানের তেলওয়াত শুনে দেখতে পারেন:

    http://www.youtube.com/watch?v=PD6Ov8JHTfk

    Abu Aaisha

    @এস.এম. রায়হান,জাজাকাল্লাহু খায়রান।