লগইন রেজিস্ট্রেশন

‘ইতিহাস’ ক্যাটাগরি -এর আর্কাইভ

 

বনু নাযীরের পাপের ফর্দ

লিখেছেন: ' Mahir' @ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৫, ২০১৭ (১০:৪৭ অপরাহ্ণ)

নাস্তিকদের হিরো বনু নাযীরের সততা

রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) মদীনায় এসে অন্যদের ন্যায় তাদের সাথেও শান্তি চুক্তি করেন। তাতে বলা ছিল যে, কেউ কারু বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবে না।কুরাইশ ও তাদের সহায়তাকারীদের আশ্রয় দেয়া চলবে না।[ইবনে হিশাম ১ম খন্ড ৫০৩-৫০৪ পৃঃ] শত্রুকে সাহায্য করবে না। রক্তমূল্য আদায়ের সময় পরস্পরকে সাহায্য করবে। সকলে রাসূলকে সহযোগিতা করার মাধ্যমে মদীনাকে রক্ষা করবে।

২য় হিজরীর ৫ই যিলহাজ্জ রবিবার। বদর যুদ্ধে লজ্জাকর পরাজয়ে কুরায়েশ নেতা আবু সুফিয়ান শপথ করেছিলেন যে, মুহাম্মাদের সঙ্গে যুদ্ধ করে এর প্রতিশোধ না নেওয়া পর্যন্ত তার .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

রাসূল [সাঃ] কলম আনতে বললেন কেন?

লিখেছেন: ' Mahir' @ মঙ্গলবার, অক্টোবর ৩, ২০১৭ (১১:০৩ পূর্বাহ্ণ)

Capture








.....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

রাসূল [সাঃ] কি উম্মী বা নিরক্ষর ছিলেন? [ইতিহাস কি বলে?]

লিখেছেন: ' Mahir' @ সোমবার, অক্টোবর ২, ২০১৭ (৯:৩৭ অপরাহ্ণ)

Capture

শুরুতেই বলা রাখি, মুসলিমদের ইতিহাস মুসলিমরা-ই লিখেছে। পাশ্চাত্যের গবেষকরা পর্যন্ত ইসলামের ইতিহাস লিখার সময় মুসলিম ইতিহাসবেত্তাদের বই ছাড়া কোন রেফারেন্স দিতে পারে না। এই লেখাটিতে ফুতূহুল বুলদান বই ব্যবহার করা হয়েছে। শুরুতেই তাই এই বইটি নিয়ে পাশ্চাত্যের গবেষকদের মতামত তুলে দিচ্ছি।[যদিও অমুসলিমদের স্বীকারোক্তি জরুরি নয়। কিন্তু নাস্তিকরা তো মানতে চায় না। তাই দিলাম।] এই মতামতগুলো ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে প্রকাশিত ফুতূহুল বুলদানের ভূমিকাতে [পৃ.১২-১৩] উল্লেখ করা আছে।

ব্যক্তিকে আরবী লেখা শিক্ষা দেয়। অতঃপর যখন আরবে ইসলাম প্রচার শুরু হয়,

.....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

খায়বার যুদ্ধ নাকি খায়বার ডাকাতি

লিখেছেন: ' Mahir' @ সোমবার, অগাষ্ট ১৪, ২০১৭ (৮:৩১ অপরাহ্ণ)

নাস্তিকরা আজকাল ইতিহাস বিকৃত করে প্রচার করছে। তাই এই পোস্ট না দিয়ে আর পারলাম না। খায়বারের যুদ্ধ নিয়ে নাস্তিকরা ৩ টি অভিযোগ এনেছে।

১] রাসূলুল্লাহ [সাঃ] অযথাই তাদের আক্রমণ করেছেন। মানে, খায়বারবাসী ধোয়া তুলসী পাতা।

২] রাসূলুল্লাহ [সাঃ] নিরস্ত্র মানুষের উপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে। মানে, খায়বারবাসী জানতই না যে, তাদের আক্রমণ করা হবে।

৩] ঘুমন্ত মানুষের উপর আক্রমণ কেন করল?

১] খায়বারবাসীর অপরাধ কি?

খায়বার ছিল মদীনার উত্তরে আশি (৮০) কিংবা ষাট মাইল দূরত্বে অবস্থিত একটি বড় শহর। যে সময়ের কথা বলা হচ্ছে তখন সেখানে একটি .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ইসলাম নির্মূলই যেন সেক্যুলারদের প্রধান কর্তব্য

লিখেছেন: ' NerAß AhMed' @ শনিবার, মার্চ ৪, ২০১৭ (২:০৯ অপরাহ্ণ)

মানবাধিকারের দিক থেকেও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের একটা গুরুত্বপূর্ণ দায় ও কর্তব্য হচ্ছে, ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত করা। অথচ বিশ্বাস ধারণের অধিকার, ধর্মপালন, ধর্মচর্চা ও ধর্মপ্রচারের অধিকারের বেলায় বাংলাদেশে আমরা এর ঠিক উল্টাটা দেখছি। ধর্মীয় স্বাধীনতা দূরের কথা, খোদ ধর্মই- বিশেষত: ইসলাম নির্মূল করাই বাংলাদেশের সেক্যুলার তথা ‘আধুনিক’দের কর্তব্য হয়ে উঠেছে। উলামা-মাশায়েখগণ যখন তাঁদের ভাষায় এর প্রতিবাদ করছেন, তখন সমস্বরে আওয়াজ তোলা হচ্ছে, ‘আলেম-উলামাগণ বাংলাদেশকে ধর্মরাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়’। ধার্মিক মুসলমানদের ধর্মীয় অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াই-সংগ্রামের গণতান্ত্রিক অধিকার থাকার বিষয়টি কেউই বিবেচনা করতে রাজি .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

মির্যা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী কি ‘প্রতিশ্রুত ঈসা মসীহ-ইমাম মাহদী’ ?

লিখেছেন: ' আবদুস সবুর' @ বুধবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৫ (১২:৩৫ অপরাহ্ণ)

কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় ইমাম ও খলিফা, মির্জাপুত্র বশীরুদ্দীন মাহমুদ ১৯১৫ সনে ‘হাকীকাতুন নবুওয়াহ’ নামে একটি বই লিখে প্রচার করেছেন। তিনি এটি কাদিয়ানী লাহোরী গ্রুপের বিরুদ্ধে লিখেছেন এবং তাতে মির্জা সাহেবের স্বতন্ত্র-শরঈ নবী হওয়ার বিষয় ‘দালীলিক’ভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করেছেন। বইটির প্রচ্ছদে বড় অক্ষরে লেখা আছে, ‘প্রতিশ্রুত ঈসা মসীহ-ইমাম মাহদীর নবুওত ও রেসালাত অকাট্য দলীলে প্রমাণিত।’

বইয়ের ১৮৪-২৩৩ পর্যন্ত প্রায় পঞ্চাশ পৃষ্ঠাব্যাপী ‘দলীল-প্রমাণ’ দ্বারা মির্জা সাহেবের নবুওত প্রমাণের চেষ্টা করা হয়েছে। সেখানে মূলত লাহোরী গ্রুপের মত খন্ডন করে বিশ প্রকার ‘দলীল’ দেওয়া হয়েছে। .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

হাদিস

লিখেছেন: ' মোহাম্মাদ আলী' @ সোমবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৫ (১০:৩৮ অপরাহ্ণ)

“ঐ ব্যক্তি মুমিন নয় যে পেট পুরে খায় অথচ তার পাশের প্রতিবেশী না খেয়ে থাকে এবং সে তার সম্পর্কে জানে”

ইমাম বুখারী আল-আদাবল মুফরাদ, হাদিস:১২৮

! রিপোর্ট করুন ! .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

কুরআনে ইফতারের ওয়াক্ত বা সময়

লিখেছেন: ' Talebul Elm' @ শনিবার, জুন ২১, ২০১৪ (৩:২৬ অপরাহ্ণ)

[হাদীস অস্বীকারকারী ও শিয়া সম্প্রদায় যতগুলো ব্যাপারে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে তার মধ্যে ইফতারের ওয়াক্ত অন্যতম। নিচে এ সম্পর্কে আলোকপাত করা হলো। হাদীসে সূর্যাস্ত হওয়ার মুহূর্ত থেকেই রাতের আগমন ও ইফতারের শুরুর সময় ঘোষণা করা হয়েছে। যেহেতু তারা হাদীস থেকে দলিল নিতে চায় না, এ কারণে আমরাও হাদীস উপস্থাপন করা থেকে দূরে থাকছি। অথচ প্রমাণিত হবে, হাদীসের দাবীকেই কুরআনের আয়াত সমর্থন করছে। অবশ্য আলোচনার শেষে মাত্র একটি হাদীস উপস্থাপনার মাধ্যমে আয়াতগুলোর দাবীর সাথে কিভাবে হাদীস পরিপূরক হল, সেটা উপস্থাপন করেছি।]

আল্লাহ তা‌‌‘আলা .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ওহাবী কারা?

লিখেছেন: ' ABU TASNEEM' @ মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৫, ২০১৩ (৫:৫৮ পূর্বাহ্ণ)

WAHABI


ওহাবী কারা? সঠিক তথ্য জানতে চাই। কেন, কারা বা কদের ওহাবী বলা হয়?

উত্তর:
সকল প্রশংসা একমাত্র আল্লাহ্‌র জন্য।

যারা ইমাম মুহাম্মাদ ইব্‌ন আব্দুল ওহ্‌হাবকে মানে তাদেরকে ইহুদীরা ওহাবী নাম দেয়। ওয়হাবীরা আল্লাহ্‌র তৌহীদ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সকল বাধাকে অতিক্রাম করে থাকে। তারা সর্বদা জিহাদের জন্য প্রস্তুত। মূলত ওহাবীরা সৌদিতে বাস করে এবং অন্যান্য দেশেও বাস করে।

ইমাম মুহাম্মাদ ইব্‌ন আব্দুল ওহ্‌হাব – তার জীবনী এবং ধর্ম প্রচার
বর্ণনায় – শাইখ আব্দুল আযিজ ইব্‌ন আব্দুল্লাহ ইব্‌ন বায (রহ:)

.....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বাকীউল গারক্বাদ

লিখেছেন: ' ABU TASNEEM' @ শনিবার, জুন ২, ২০১২ (৬:০২ পূর্বাহ্ণ)

BAQIUL GARQAD

একটা মাজারও চোখে পড়তেছে না এত বড় কবরস্থানে !! না একটা পাকা কবর !! না একটা কবরে চাদর চরানো!! রাসুল (সাঃ) এর সাহাবীদের মধ্যে আনুমানিক ১০,৫০০ সাহাবী শুয়ে আছেন এই কবরস্থানে!!

খুব সহজ একটি সমীকরণ, দেশটা বাংলাদেশ নয়!! দেশটা সৌদি আরব !! শহরটি মদিনা মনোয়ারা !! বাকিউল গারকাদ!! জান্নাতুল বাকি নামে চিনে আমাদের দেশের মানুষ |

আমাদের দেশের কিছু মানুষ ইদানিং আরবদের থেকেও বেশি বড় মুসলমান হয়েছে !! তারা ভুলে আছে ইসলাম এর উত্পত্তি ঐখান থেকেই এবং ইসলাম ঐখানেই ফিরে যাবে !!

আবু .....

১৩ টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>