লগইন রেজিস্ট্রেশন

অক্টোবর, ২০১১ -এর আর্কাইভ

 

হিন্দু সম্প্রদায় দ্বারা মুসলমানদের বাড়িতে ও মসজিদে হামলা ভাঙচুর কিসের আলামত? -পীর সাহেব চরমোনাই

লিখেছেন: ' এম এম নুর হোসেন' @ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১১ (৪:২৬ অপরাহ্ণ)

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই ও মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ গতকাল বুধবার এক যুক্ত বিবৃতিতে গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘‘মুসলিম অধ্যুষিত দেশে হিন্দু সম্প্রদায় কর্তৃক চট্টগ্রাম মহানগরীর পাথরঘাটা এলাকায় মসজিদ ভাঙচুর, মুসলমানের বাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনার মত ঘটনায় আমরা বিস্মিত হয়েছি। এসব কিসের আলামত? হিন্দু সম্প্রদায় কর্তৃক আল্লাহর ঘরে হামলা চালানোর ঘটনাকে কোনভাবেই ছোট করে দেখার সুযোগ নেই।’’

তারা বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই হিন্দু সম্প্রদায়ের আস্ফালন পরিলক্ষিত .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

হাশরের ভয়াবহতা নিয়ে কিছু কথা পর্ব ০১

লিখেছেন: ' shahedups' @ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১১ (৩:২৯ অপরাহ্ণ)

হাশরের মাঠের পরিস্থিতি হবে অত্যন্ত ভীতিকরঃ
আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণিত আছে,
أَنَّهَا ذَكَرَتِ النَّارَ فَبَكَتْ فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّه عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَا يُبْكِيكِ قَالَتْ ذَكَرْتُ النَّارَ فَبَكَيْتُ فَهَلْ تَذْكُرُونَ أَهْلِيكُمْ يَوْمَ الْقِيَامَةِ فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّه عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَمَّا فِي ثَلَاثَةِ مَوَاطِنَ فَلَا يَذْكُرُ أَحَدٌ أَحَدًا عِنْدَ الْمِيزَانِ حَتَّى يَعْلَمَ أَيَخِفُّ مِيزَانُهُ أَوْ يَثْقُلُ وَعِنْدَ الْكِتَابِ حِينَ يُقَالُ (هَاؤُمُ اقْرَءُوا كِتَابِيَهْ ) حَتَّى يَعْلَمَ أَيْنَ يَقَعُ كِتَابُهُ أَفِي يَمِينِهِ أَمْ فِي شِمَالِهِ أَمْ مِنْ .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

জবাব চাই

লিখেছেন: ' eagle' @ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১১ (১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ)

আফগানিস্তানে আমেরিকা এবং তাদের দোসররা গণহত্যা চালিয়ে লাখ লাখ মুসলিমদের হত্যা করেছে এবং করছে।

কাশ্মিরের স্বাধিনতাকামী মুসলিম জনগণের উপর ভারতীয় আগ্রাসী শক্তি গণহত্যাসহ ধর্ষনের রাজত্ত্ব কায়েম করেছে।

মিথ্যা অভিযোগে ইরাক আক্রমন করে সেখানকার লাখ লাখ মুসলিমদের হত্যা করা হয়েছে এবং হচ্ছে।

ফিলিস্তিনের ভূমিকে জোর করে দখলে রেখে মাঝে সাঝেই গণহত্যা চালাচ্ছে ইইদী- মার্কিন জোট।

সন্ত্রাসবাদী আমেরিকা এবং তাদের দোসররা সন্দেহভাজ আল-ক্বায়েদা হত্যা করছে নির্বিচারে, এখানে মহিলারাও নিরাপদ নয়, সন্দেহভাজ আল-ক্বায়েদা দাবি করে মুসলিম মহিলাদের উপর তারা নির্যাতন কেন্দ্রগুলিতে পাশবিক, শারিকির .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

শবে বরাত এ করণীয় কিছু বিষয়

লিখেছেন: ' sayedalihasan' @ বুধবার, অক্টোবর ১২, ২০১১ (৬:৪৩ অপরাহ্ণ)

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম।

‘শব’ শব্দটি ফারসী শব্দ যার অর্থ রাত বা রজনী।
আর ‘বরাত’ শব্দটিও ফারসী শব্দ যার অর্থ ভাগ্য। তাই দু’শব্দের অর্থ হলো: ভাগ্য রজনী।
অনেকে বরাত শব্দটিকে আরবী মনে করে থাকেন। যা সম্পূর্ণ ভূল; কারণ বরাত বলতে আরবী ভাষায় কোন বাক্য নেই। আর যদি বরাত শব্দটি আরবী ভাষার বারা’আত শব্দটির অপভ্রংশ ধরা হয় তবে তার অর্থ হবেঃ সম্পর্কচ্ছেদ বা বিমুক্তিকরণ। কিন্তু কয়েকটি কারণে এ অর্থ গ্রহণ করা যায়না;
১. এর আগের শব্দটি ফারসী হওয়াতে তাও ফারসী শব্দ হিসাবে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

হাশরের মাঠের দৃশ্য ও হাশরের দিন মানুষের ব্যস্ততাঃ

লিখেছেন: ' shahedups' @ বুধবার, অক্টোবর ১২, ২০১১ (৫:৪৬ অপরাহ্ণ)

হাশরের মাঠে সমস্ত মাখলুককে হিসাব এবং তাদের মাঝে সুবিচারের জন্যে একত্রিত করা হবে। এদিন হবে অত্যন্ত ভয়াবহ। কুরআন ও হাদীছে এদিনের ভয়াবহতা বর্ণনা করা হয়েছে। নিম্নে কুরআন ও সুন্নার আলোকে কিয়ামত ও হাশরের মাঠের আংশিক চিত্র তুলে ধরা হল। আল্লাহ তাআলা বলেনঃ
يَوْمَ تُبَدَّلُ الْأَرْضُ غَيْرَ الْأَرْضِ وَالسَّمَاوَاتُ وَبَرَزُوا لِلَّهِ الْوَاحِدِ الْقَهَّارِ
অর্থঃ “সেদিন পরিবর্তিত করা হবে এপৃথিবীকে অন্য পৃথিবীতে এবং পরিবর্তিত করা হবে আসমানসমূহকে এবং লোকেরা পরাক্রমশালী এক আল্লাহর সামনে হাজির হবে। (সূরা ইবরাহীমঃ ৪৮) হাশরের নবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

‘কিতাবুল্লাহ’ ও ‘রিজালুল্লাহ’ দ্বীন শেখা ও বোঝার প্রধান মাধ্যম

লিখেছেন: ' মাসরুর হাসান' @ মঙ্গলবার, অক্টোবর ১১, ২০১১ (৮:২৫ অপরাহ্ণ)

মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান দা:বা: এর বয়ান

বান্দাকে দ্বীন শিক্ষা প্রদানে আল্লাহর পদ্ধতি
اللهم صل على محمد وعلى اله وسلم تسليما ـ استغفر الله رابى من كل ذنب واتوب اليه ـ لا حول ولا قوة الا بالله العليى العظيم ـ
আল্লাহ পাক যুগে যুগে অসংখ্য নবী পাঠিয়েছেন। তাঁরা উম্মতকে বুঝাতেন, সত্য ও সঠিক পথের পরিচয় পেশ করতেন এবং সে পথে চলতে উপদেশ দিতেন। বোঝা গেল যে, আল্লাহপাক সরাসরি বান্দার নিকট কিতাব পাঠিয়ে নিজে নিজেই তার অর্থ ও ব্যাখ্যা অনুধাবন করে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

কাফেরদের মৃত্যু যন্ত্রনাঃ

লিখেছেন: ' shahedups' @ মঙ্গলবার, অক্টোবর ১১, ২০১১ (৪:২৪ অপরাহ্ণ)

মৃত্যুর সময় কাফেরেরা খুবই কঠিন ও ভয়াবহ পরিস্থিতির শিকার হয়ে থাকে। আল্লাহ তাআলা বলেনঃ
وَلَوْ تَرَى إِذْ الظَّالِمُونَ فِي غَمَرَاتِ الْمَوْتِ وَالْمَلَائِكَةُ بَاسِطُوا أَيْدِيهِمْ أَخْرِجُوا أَنفُسَكُمْ الْيَوْمَ تُجْزَوْنَ عَذَابَ الْهُونِ بِمَا كُنتُمْ تَقُولُونَ عَلَى اللَّهِ غَيْرَ الْحَقِّ وَكُنتُمْ عَنْ آيَاتِهِ تَسْتَكْبِرُونَ
অর্র্থঃ “আপনি যদি জালিমদেরকে ঐ সময়ে দেখতে পেতেন যখন তারা মৃত্যু যন্ত্রনায় থাকবে এবং ফেরেশতাগণ হাত বাড়িয়ে বলবেনঃ তোরা নিজেরাই নিজেদের প্রাণ বের করে আন। তোদের আমলের কারণে আজ তোদেরকে অবমাননাকর আযাব দেয়া হবে। কারণ তোরা .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

কবরে কাফের ও মুনাফেকের করুণ অবস্থাঃ

লিখেছেন: ' shahedups' @ সোমবার, অক্টোবর ১০, ২০১১ (৩:৫৫ অপরাহ্ণ)

অতঃপর তার রূহকে দেহে ফেরত দেয়া হয়। নবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেনঃ তাকে দাফন করে যখন লোকেরা চলে যায় তখন দু’জন ফেরেশতা আগমণ করেন এবং কঠিনভাবে ধমকাতে থাকেন। অতঃপর তাকে বসিয়ে জিজ্ঞেস করেনঃ তোর প্রভু কে? সে উত্তর দেয়ঃ আফসোস! আমি জানিনা। আবার জিজ্ঞেস করেনঃ তোর দ্বীন কি? জবাবে সে বলেঃ হায়! আমি তো এটা অবগত নই। তারপর জিজ্ঞেস করেনঃ তোদের কাছে যে লোকটিকে পাঠানো হয়েছিল তাঁর সম্পর্কে তোর ধারণা কি? সে উত্তরে বলেঃ হায় আফসোস! .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

আগামী ১৫ অক্টোবর হজ্বে যাচ্ছি। সকলের দোয়া চাই।

লিখেছেন: ' আবদুস সবুর' @ সোমবার, অক্টোবর ১০, ২০১১ (৯:৩৬ পূর্বাহ্ণ)

আগামী ১৫ অক্টোবর শনিবার হজ্বের উদ্দেশ্যে পবিত্র মক্কাশরীফ যাত্রা করব ইনশাআল্লাহ।

অনেক দিনের আশা পবিত্র মক্কা শরীফ এবং পবিত্র মদিনা শরীফ নিজের চোখে দেখবো। পবিত্র কাবা শরীফে সালাত আদায় করব। হুজুর (স)-এর রওজা শরীফ যেয়ারত করব।

আল্লাহ তা’য়ালা এই গুনাহগারের দোয়া কবুল করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ

সকলের নিকট দোয়া চাই যেন আল্লাহ তা’য়ালা এই গুনাহগারের সকল গুনাহ মাফ করে আদায়কৃত হজ্ব কবুল করে নেন এবং যাদের উপর তিনি সন্তুষ্ট তাদের মত আমল করার তৌফিক দান করেন।আমীন।

.....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

মৃত্যুর সময় কাফেরদের করুণ অবস্থাঃ

লিখেছেন: ' shahedups' @ রবিবার, অক্টোবর ৯, ২০১১ (২:৪৪ অপরাহ্ণ)

অপর পক্ষে কাফের ব্যক্তির যখন দুনিয়া হতে বিদায় গ্রহণের সময় হয় তখন কালো বর্ণের একদল ফেরেশতা এসে উপস্থিত হন। তাদের সাথে থাকে দুর্গন্ধযুক্ত কাপড়। চোখের দৃষ্টি যতদূর যায় তথায় তারা বসে থাকেন। তারপর মৃত্যুর ফেরেশতা এসে তাকে বলেনঃ ওহে অপবিত্র আত্মা! বেরিয়ে আয় আল্লাহর ক্রোধ ও অসন্তুষ্টির দিকে। কাফের বা পাপীর আত্মা তখন দেহের মাঝে পালাতে চেষ্টা করে। কিন্তু ফেরেশতা তাকে এমনভাবে টেনে বের করেন যেমনভাবে লোহার পেরেককে ভিজা পশমের মধ্য থেকে টেনে বের করা হয়। তার রূহ্‌ বের হওয়ার .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>