লগইন রেজিস্ট্রেশন

৩টি প্রশ্ন ও একটি শিক্ষণীয় ঘটনা

লিখেছেন: ' হাফিজ' @ বুধবার, মার্চ ২৫, ২০১৫ (৭:৪০ পূর্বাহ্ণ)

১)

একদিন এক গ্রাম্য বেদুইন ব্যক্তি রসুলুল্লাহ (সা:) কে এসে বললেন “আপনি যে জিনিসগুলো বলেন ৩টি বিষয় আমার বুঝে আসে না-

১। আপনি বলেন যে আরবার পূর্বপুরুষদের মূর্তি পূজা পরিত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করবে, আমি এটা মানতে পারি না কিভাবে সম্ভব
২। আপনার অনুসারীরা একদিন পারস্য ও রোম সম্রাজ্য দখল করবে, তাদের ধন-ভান্ডার মুসলিমদের করায়ত্ব হবে। এটা কিভাবে সম্ভব, যেখানে তারা ক্ষুধার জ্বালায় পেটে পাথর বেধে রাখে। এটা আমি মানতে পারি না বা বুঝি না।
৩। আরো একটি আশ্চর্যের ব্যাপার হোলো, আপনি যেটা বলেন, মারা যাবার পর একদিন আমরা পুনরিজ্জিবীত হবো? কিভাবে সম্ভব? মাটির সাথে মিশে যাবার পর কিভাবে আমরা আবার পুনরিজ্জিবীত হোবো?

রসুলু্ল্লাহ (সা:) তার হাতে ধরলেন এবং বলেন “আমি শেষ বিচারের দিন এভাবে তোমার হাত ধরব এবং তোমাকে মনে করিয়ে দিবো আমাদের আলোচনার এই মুহুর্তটি” ।

তারপর সেই গরীব গ্রাম্য ব্যক্তি দেখলেন অগণিত সংখ্যক আরবরা ইসলামে দাখিল হতে থাকল । সে বলল “রসুলুল্লাহ (সা:) এর প্রথম ভবিষ্যৎবাণী সত্য হয়েছে” ।
তারপর সেই গরীব গ্রাম্য ব্যক্তি দেখলেন রোম এবং পারস্যে জয়ী হোলো এবং তাদের ধন-ভান্ডার ওমর (রা:) এর সময় মুসলমানরা হস্তগত করল।
সে বলল “রসুলুল্লাহ (সা:) এর ২য় ভবিষ্যৎবাণী সত্য হয়েছে” ।

সে তখন বলল “৩য় ভবিষ্যৎবাণী সত্য হওয়া পর্যন্ত আমি অপেক্ষা করতে পারব না” । সে ওমর (রা:) এর কাছে এলো এবং ইসলাম গ্রহণ করল।

২)
পরবর্তীতে যখন সেই ব্যক্তি ওমর (রা:) কাছে আসত , তখন তিনি দাড়িয়ে যেয়ে তাকে সম্মান করতেন। অন্যান্য মুসলিমরা তখন ওমর (রা:) কে জিজ্ঞেস করতেন “আপনি কেনো এই ব্যক্তিকে এত সম্মান করেন”?

হযরত ওমর (রা:) বলেন আমি নিজের কানে শুনেছি যে রসুলুল্লাহ (সা:) বলেন “আমি শেষ বিচারের দিন এভাবে তোমার হাত ধরব এবং তোমাকে মনে করিয়ে দিবো আমাদের আলোচনার এই মুহুর্তটি” । সুতরাং রসুলুল্লাহ (সা:) শেষ বিচারের দিন যে ব্যক্তির হাত ধরবেন তাকে জান্নাতে না নিয়ে উনি ছাড়বেন না। সুতরাং এই ব্যক্তি জান্নাতী।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১,০৮৩ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (ভোট, গড়: ৪.০০)