লগইন রেজিস্ট্রেশন

আয়িশা [রাঃ] কি অদৌ নাবালিকা ছিলেন?

লিখেছেন: ' Mahir' @ রবিবার, এপ্রিল ১৫, ২০১৮ (১:৫৬ পূর্বাহ্ণ)

এটা নিয়ে লিখার ইচ্ছা ছিল না। যেসব মুসলিম ব্লগার এটা আলোচনা করেছে, তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।কিন্তু সবাই একটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট উপেক্ষা করে গেছেন।

সাবালিকা মানে কি?

মেয়েরা আজকাল গড়ে ৮ বছরে বয়:সন্ধিতে পৌছায়। girls start puberty between the ages of 8 and 13, but some will start to develop breasts, pubic hair, or body odor before age 8 [লিংক]

এখন বয়:সন্ধির লক্ষণ দেখা দিলেই কি মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক হয়?

বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে না। তবে ইসলামের দৃষ্টিতে হ্যা। কেন?

কারন ইসলামের দৃষ্টিতে বয়:সন্ধি হল ঋতুস্রাব হওয়া।

In the case of females, a fourth sign is added to this list, namely menstruation. If a female menstruates, even if she is ten years old, then she has reached puberty.

End quote from ash-Sharh al-Mumti‘, 4/224

আর বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে বয়:সন্ধি হল- puberty is the beginning of breast development (breast buds)

তাহলে বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে মেয়েরা প্রাপ্তবয়স্ক কখন?

onset of menstruation (having periods) usually happens later than the other physical changes and usually occurs around two and a half years after the onset of puberty.

A regular pattern of ovulation, corresponding to achievement of fertility, [লিংক]

স্পষ্টত, ইসলাম যে বয়সকে বয়:সন্ধি বলে,বিজ্ঞান তাকে প্রাপ্তবয়স্ক বলে।

এখন বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে আরবের একটা মেয়ে ৭ বছরে লক্ষণ দেখা দিলে ২ বছর পরে ৯ বছর বয়সে প্রাপ্তবয়স্ক হবে।আর ইসলামের মতে,মেয়েটা ৯ বছর বয়সে বয়সন্ধিতে( প্রাপ্তবয়স্ক) উপনীত হবে। সহজ হিসাব।কিন্তু ইসলামবিরোধীদের মাথায় সহজ জিনিস ঢুকে না।

আলোচ্য হাদিস

ফারওয়া ইবনু আবূ মাগরা (রহঃ) … আয়শা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যখন আমাকে বিবাহ করেন, তখন আমার বয়স ছিল ছয় বছর। তারপর আমরা মদিনায় এলাম এবং বনু হারিস গোত্রে অবস্থান করলাম। সেখানে আমি জ্বরে আক্রান্ত হলাম এবং আমার চুল পড়ে গেল। (সুস্থ হওয়ার) পরে যখন আমার মাথার চুল জমে উঠল। সে সময় আমি একদিন আমার বান্ধবীদের সাথে দোলনায় খেলা করছিলাম। তখন আমার মাতা উম্মে রূমান আমাকে উচ্চস্বরে ডাকলেন। আমি তাঁর কাছে এলাম। আমি বুঝতে পারিনি তার উদ্দেশ্য কি? তিনি আমার হাত ধরে ঘরের দরজায় এসে আমাকে দাঁড় করালেন। আর আমি হাফাচ্ছিলাম। অবশেষে আমার শ্বাস-প্রশ্বাস কিছুটা স্থির হল। এরপর তিনি কিছু পানি নিলেন এবং এর দ্বারা আমার মুখমণ্ডল ও মাথা মাসেহ করে দিলেন। তারপর আমাকে ঘরের ভিতর প্রবেশ করালেন। সেখানে কয়েকজন আনসারী মহিলা ছিলেন। তাঁরা বললেন, (তোমার আগমন) কল্যাণময়, বরকতময় এবং সৌভাগ্যময় হউক। আমাকে তাদের কাছে সোপর্দ করে দিলেন। তাঁরা আমার অবস্থান ঠিকঠাক করে দিলেন, তখন ছিল পূর্বাহ্ণ। হঠাৎ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর আগমন আমাকে সচকিত করে তুলল। তাঁরা আমাকে তাঁর কাছে সোপর্দ করে দিলেন। সে সময় আমি নয় বছরের বালিকা। [বুখারী]

মদীনার সংক্রামক জ্বর নয়

কেউ কেউ ভাবতে পারেন,মদীনার সংক্রামক জ্বরে তিনি আক্রান্ত হয়েছিল।কিন্তু এটা ভুল ধারনা। হাদিসের শব্দগুলো স্পষ্ট প্রমাণ করে সেটা বয়:সন্ধির লক্ষণ ছিল।আয়িশা(রা:) নিজেই হাদিসটি বর্ণনা করেছেন। কিন্তু তিনি একথা বলেন নি যে,এটা মদীনার আবহাওয়ার জন্য হয়েছে।অথচ আয়িশা(রা:) ঠিকই আবু বকর(রা:) এর ক্ষেত্রে উল্লেখ করেছেন যে,আবু বকরের মদীনার বিশেষ জ্বর হয়েছিল। মদীনার জুরে মুহাজিরদের আক্রান্ত হওয়া প্রসঙ্গে ইমাম বুখারী (র) আবদুল্লাহ ইবন ওয়াহাব সূত্রে হযরত আইশা (রা) থেকে বর্ণনা করেন :

তিনি বলেন, যখন নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (মদিনা) আসলেন, তখন আবূ বকর (রাঃ) ও বিলাল (রাঃ) জ্বরাক্রান্ত হলেন। তিনি বলেনঃ আমি তাদের কাছে গেলাম এবং বললাম আব্বাজান, আপনার কাছে কেমন লাগছে? … [বুখারী ] আয়িশা(রা:) উক্ত জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন এমন কথা কোন হাদিসে পাওয়া যায় না।ইমাম বুখারী (রাহ:) তার কিতাবে এমন ইংগিতও দেন নি যে,আয়িশা(রা:) উক্ত জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। তো এবার আসল কথায় আসি,

এই জ্বর মূলত বয়:সন্ধিকালীন জ্বর

তুলার পট্টির জন্য হতে পারেঃ

প্রাচীন আরবের মেয়েরা কি হায়েজের সময় যোনিপথে কাপড় বা তুলার পট্টি প্রবেশ করিয়ে রাখত। [বিস্তারিত] এই তুলার পট্টি ব্যবহারে কখন কখনো কিছু ছোট-খাটো ইনফেকশন হয়ে যায়।আর এতে জ্বরও আসতে পারে।

If your daughter chooses to use tampons, tell her about toxic shock syndrome, a relatively rare but extremely serious illness that can result from tampon use…. Symptoms of TSS include a high fever,… if your daughter does come down with a high fever or what seems to be a bad virus while using tampons [ লিংক]

স্বল্প সময়ের ব্যবধানে কাপড় বা তুলা বদলে নিলে ইনফেকশন হওয়ার ভয় নেই।সম্ভবত,সদ্য বয়:সন্ধিতে পদার্পণকারী আয়িশা(রা:) এই নিয়ম-কানুন তখনো পুরোপুরিভাবে আয়ত্ত করেন নি।তাই জ্বর এসে গিয়েছিল।

ঋতুস্রাবও দায়ী হতে পারেঃ

শুধু তুলার পট্টিই নয়,অন্যান্য কারনেও বয়:সন্ধিকালে জ্বর আসতে পারে

Sometimes the menstrual cycles can be associated with severe pain. This can lead to fever. However it can be that both fever and the menstrual cycle could be completely unrelated. Any associated symptoms will also be looked at. [লিংক]

তাহলে এখন অন্যান্য উপসর্গ আমাদের hypothesis কে support করে কিনা সেটা দেখা দরকার

হাদিসের আরেকটি দিক হল-চুল পড়ে যাওয়া।

বয়:সন্ধি চুল পড়ার জন্য সরাসরি দায়ী নয়,বরং বয়:সন্ধিকালে হরমোন হ্রাস-বৃদ্ধি চুল পড়ার জন্য দায়ী।

You may be surprised to learn that hair loss during puberty is normal. [লিংক]
puberty is not directly related to a hair loss condition. Although the change in hormones for boys and girls could trigger a certain type of hereditary hair loss.[লিংক]
teenage girl will experience a lot of hormonal fluctuations during puberty. This is one of the common causes of hair loss in teenage females.[লিংক]
As young girls turn into growing teenagers, they go through many bodily changes, including changes in their hormones…Teenage girls may experience this hair loss until the hormones balance out in their bodies.[লিংক]
During puberty, hormones can fluctuate more wildly than at any other time in our lives. These changing hormone levels can have an impact on mood as well as affecting the skin and hair. Raised hormone levels or fluctuations can affect both sexes and could cause hair loss.[লিংক]

প্রশ্ন:একইসাথে জ্বর ও চুল পড়ে যাওয়া মানে-ই কি বয়:সন্ধির লক্ষণ?

জবাব:না।অনেক ক্ষেত্রে জ্বরের কারনে মাথার চুল পড়ে যেতে পারে।

প্রশ্ন: তাহলে আয়িশা(রা:) ক্ষেত্রে আপনার diagnosis সঠিক বলে কেন মনে করেন?

জবাব: এটা এজন্য যে,ইসলামে বয়:সন্ধির আগে স্ত্রীর নিকটবর্তী হওয়া নিষেধ। [এখানে এবং এখানে ] কাজেই, নিষিদ্ধ কাজটি রাসূল(সা:) কেন করবেন? হ্যা,আপনি বলতে পারেন যে,তবে রাসূল(সা:) চারের অধিক বিয়ে করেছেন কেন? আমার জবাব হবে,তার জন্য আল্লাহ বিশেষ আয়াত নাযিল করেছিলেন,কিন্তু বয়:সন্ধির আগেই স্ত্রীর নিকটবর্তী হওয়ার বৈধতা দিয়ে আল্লাহ তা’আলা কোন আয়াত নাজিল করেন নি। সুতরাং শরীয়ত ভিত্তিক যুক্তিতে আয়িশা(রা:) সাবালিকা ছিলেন।এছাড়া মুহাদ্দিসদের অনেকেই,এমনকি কিছু হাদিসে আয়িশা(রা:) নিজেই নিজেকে সাবালিকা বলে উল্লেখ করেছেন। আমরা যে হাদিসটি উল্লেখ করেছি সেখানেও দেখা যাচ্ছে যে,তিনি(রা:) সুস্থ হওয়ার ঠিক পরেই রাসূলের গৃহে পদার্পণ করেন।কাজেই শুধু জ্বর থেকে তার বালেগা হওয়া প্রমাণ হয় না।বরং শরীয়ত ভিত্তিক যুক্তি,মুহাদ্দিসদের উক্তি,আয়িশা(রা:) নিজস্ব দাবি আর উপরের হাদিসে বর্ণিত প্রেক্ষাপট [সুস্থ হওয়ার ঠিক পরেই রাসূলের গৃহে পদার্পণ ] থেকে সমস্ত দলিলাদি একত্রিত করে এটা স্পষ্ট হয় যে,জ্বর ও সাথে চুল পড়ে যাওয়া তার সাবালিকা হওয়ার শারীরবৃত্তীয় প্রমাণ বহন করে।

আরও পড়ুনঃ কিশোরী আয়েশা রাঃ এর বিয়ে নিয়ে বিদ্বেষীদের মিথ্যাচার!
মুহাম্মদ (সঃ) এর সাথে হযরত আয়িশা (রাঃ)’র বিয়ে
সততার কাঠগড়ায় আকাশ মালিক : যে সত্য বলা হয়নি-১

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
২৩৩ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (ভোট, গড়: ৪.০০)