লগইন রেজিস্ট্রেশন

***Career***

লিখেছেন: ' manwithamission' @ বুধবার, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৩ (১:১৪ অপরাহ্ণ)

ছাত্রদের মাঝে বর্তমান সময়ে Career কিভাবে গঠন করব বা করা যায় বা কাকে অনুসরণ করে Career গঠন করব বিষয়গুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ। Career গঠন করাটাই জীবনের প্রধান উদ্দেশ্য অর্থাৎ Career ভাল না হলে ভাল Income হবে না, ভাল বিয়ে হবে না, উন্নত জীবন হবে না, জীবনকে সহজীকরণ/উন্নতকরণ জিনিসগুলো ক্রয় করার সামর্থ্য হবে না প্রভৃতি। অবস্থাদৃষ্টে Carrier ভাবনাটাই আমাদের সমাজে Way of Life হিসেবে গড়ে উঠেছে। ইসলাম Way of Life না হয়ে পশ্চিমা তথা মূলত ইহুদী-খ্রিস্টানদের মত বস্তুবাদী দুনিয়া কেন্দ্রিক Career গঠন করা জীবনের প্রধান উদ্দেশ্য। যাত্রীবাহী গাড়ীর প্রধান উদ্দেশ্য যাত্রী বহন করা ঠিক তেমনি বর্তমানে উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত/সার্টিফিকেট/পাসপোর্টে উল্লিখিত ধর্মের জায়গায় ‘ইসলাম’ লিখিত অধিকাংশ মানুষের জীবনের প্রধান উদ্দেশ্য যে কোন উপায়ে হোক আগে Career গঠন করতে হবে। প্রয়োজন হলে সুদী ব্যাংকে চাকরী করতে হবে, কিভাবে সুদ বিস্তার করা যায় তার জন্যে কষে ফিনান্স পড়তে হবে, Arts Faculty তে বর্বর প্রেমের উপন্যাস পড়তে হবে, বানর থেকে মানুষ হয়েছে সেই ইতিহাস পড়তে হবে, ডারউনের থিওরীর উপর PHD করতে হবে, বিদেশে পড়তে যেয়ে BAR কিংবা ক্লাব! জাতীয় স্থানে কাজ করতে হবে, গার্মেন্টস ব্যবসা করতে হবে যেখানে মেয়েদের ছেলেদের মত পোষাক তৈরী করে বাজারজাত করে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে হবে প্রভৃতি।

উন্নত Career গঠন করতে হলে ভাল টিচারের কাছে পড়তে হবে আর টিচারের কাছে পড়তে য়েয়ে আসর-মাগরীবের নামায কাযা/পরিত্যাগ করা মামুলি বিষয়। এই রকম Career ধারী ব্যক্তির নিকট ইসলাম হচ্ছে অনেকটা Optional Subject. তাদের নিকট মহান আল্লাহর আনুগত্য করা, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সুন্নাহ’র অনুসরণ করা রডকে খালি হাতে বাকা করতে যাওয়ার মতই কঠিন।

একটা বিষয় বুঝতে হবে সাহাবারা যাদের উপর আল্লাহ তা’আলা সন্তুষ্ট হয়েছেন এবং তারাও আল্লাহর উপর সন্তুষ্ট। তাদের উপর আল্লাহ তা’আলা এই জন্য সন্তুষ্ট হননি যে তারা জীবনকে সহজীকরণ/উন্নতকরণ জিনিস ব্যবহার করত বলে, তাদের উপর আল্লাহ তা’আলা এজন্যে সন্তুষ্ট হননি যে তারা অত্যন্ত সম্পদশালী হয়েছিলেন বলে, এজন্য হননি যে তারা Career এর জন্যে সালাত/সাওম ত্যাগ করতেন বলে। বরং তাদেরকে আল্লাহ তা’তাআলা সম্মানিত করেছেন ইসলাম দ্বারা, তাদের উপর সন্তুষ্ট হয়েছেন আল্লাহ’র আনুগত্য এবং রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণ করার মাধ্যমে। তারা দুনিয়া থেকে ততটুকুই গ্রহণ করতেন যতটুকু গ্রহণ করলে আল্লাহর আনুগত্য ও রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণের ক্ষেত্রে অসুবিধা না হয়। আর আমরা আল্লাহর আনুগত্য ও রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণ ততটুকু করছি যতটুকু করলে আমাদের Career গঠনে অসুবিধা না হয়!

লক্ষ্য করুন, এই পৃথিবীতে চাহিদার কোন শেষ নেই, চাহিদার চূড়ান্ত লক্ষ্যবস্তুতে দৌড়াতে থাকা বর্তমান সময়ের অধিকাংশ মানুষের নিকট ‘শান্তি’ নামক শব্দটি সবচেয়ে প্রিয় কারণ জীবনটাকে উপভোগ করার জন্যে তা খুব প্রয়োজন। তাই যখন কোন মুসলিম আল্লাহর আনুগত্য ও রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণের কথা বলে তখন তাকে ‘মধ্যযুগীয়’ বলা হয়; যখন আল্লাহ ও রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বিরুদ্ধে যারা চরম নিকৃষ্ট শব্দ ব্যবহার করে মুসলিমদের আঘাত করে তাদের প্রতিবাদ করা হয় তখন ‘ইসলাম শান্তির ধর্ম’ বাণীটার প্রচার-প্রসার বৃদ্ধি পায়।

আমাদের বুঝতে হবে, দুনিয়াটাকে তথা দুনিয়ার উপরস্থ জিনিসগুলোকে Carry করাটা আমাদের জীবনের প্রধান উদ্দেশ্য নয় বরং আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য আল্লাহর আনুগত্য ও রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সুন্নাহকে Carry করে জীবনটাকে অতিবাহিত করা। আল্লাহ তা’আলা আমাদের হৃদয়গুলোকে ইসলামের সাথে দৃঢ়ভাবে বেধে দিন, আমীন।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১১০ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)