লগইন রেজিস্ট্রেশন

ইসলামের উপর আঘাত আসলে আপনাদেরকে এক বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেওয়া হবে না: মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান

লিখেছেন: ' মাসরুর হাসান' @ সোমবার, জানুয়ারি ২৪, ২০১১ (১১:২৯ অপরাহ্ণ)

গত১২/০১/০,১১ বাদ ইশা নোয়াখালীর মাইজদিতে ইমাম-মুয়াযযিন কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত ঐতিহাসিক সিরাত মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন শাইখুল আলম মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান।তিনি সুন্নত তরিকায় সালামের মশক করান এবং বিভিন্ন বিষয়ে প্রায় তিনঘণ্টা ব্যাপী গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা পেশ করেন। প্রায় অর্ধলক্ষাধিক তাওহীদী জনতা এবং হাজার হাজার উলামায়ে কেরামের উপস্থিতিতে মুহিউস সুন্নাহ সরকারের উদ্দেশ্যে হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, এ দেশের মুসলমানদের ঈমান-আক্বীদা নিয়ে আর ছিনিমিনি খেলার চেষ্টা করবেন না। কারণ নিরুপায় বিড়ালও আত্মরক্ষার্থে শেষ শক্তি ব্যয় করে। আল্লাহপাক এদেশের শাষণভার আপনাদের উপর ন্যস্ত করেছেন। আমরাও আপনাদেরকে যোগ্য মনে করি। আপনাদের বিরোধিতা করতে চাইনা, তবে কুরআনের উপর আঘাত আসলে, হাদীসের উপর আঘাত আসলে এক কথায় ইসলামের উপর আঘাত আসলে আপনাদেরকে এক বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেওয়া হবে না। কারণ কুরআন-সুন্নাহ ও ইসলামী আক্বীদার উপর আঘাত আসলে এদেশের সর্বশ্রেণীর মুসলমানদের রক্তে আগুন ধরে যায়। অতএব সাবধান! উলামায়ে কেরামের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিবেন না,কারণ আলেমদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপকে এ দেশের মানুষ নিজেদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ বলে মনে করে। এদেশের মুসলমানদের হৃদয়ে উলামায়ে কেরামের ভীত এত মজবুত এবং তাঁদের নেটওয়ার্ক এত শক্তিশালী যে, প্রতিটি শুক্রবারে লক্ষ লক্ষ মসজিদে কোটি কোটি মুসলমান আলেমদের যবান থেকে মূল্যবান বক্তব্য শ্রবণ করে। এর জন্য কোন প্রচারণার প্রয়োজন হয় না, অর্থের প্রয়োজন হয় না। এমনটি করা আপনাদের সাধ্যের বাইরে। তিনি সরকারকে পরামর্শ দিয়ে বলেন, আমরা আপনাদেরকে অনুরোধ করে বলবো, এদেশের শান্তি-শৃংখলা এবং উন্নতির জন্য আপনারা পালাবদল করে বহুকিছু করেছেন, বহু আইন-কানুন তৈরি করেছেন, আবার পরিবর্তনও করেছেন। বিদেশী আদর্শ আমদানী করেছেন, পশ্চিমাদের পরামর্শে অনেক কিছু প্রবর্তন করেছেন। কিন্তু দুর্নীতিমুক্ত দেশ উপহার দিতে পারেন নি, সুদ-ঘুষমুক্ত, ভেজালমুক্ত, খুন, ধর্ষণ, ছিনতাই, রাহাজানী, অসভ্যতা, নির্লজ্জতা ও অশ্লীলতামুক্ত দেশ উপহার দিতে পারেননি। দেশের সর্বত্র অস্থিরতা, অনিয়ম, অশান্তি বিরাজ করছে। আমরা অনুরোধ করবো, শুধু একটিবার পরীক্ষামূলকভাবে ৪০ দিনের জন্য সুন্নত মুতাবেক দেশের সমস্ত মুসলমানদের জীবনযাপন করানো, এবং পাঁচ ওয়াক্ত নামায জামাতের সাথে আদায় করার ব্যবস্থা করুন। ৪০ দিন যদি দেশের সমস্ত মানুষ সুন্নাত অনুযায়ী চলতে পারে, পাচ ওয়াক্ত নামায জামাতের সাথে আদায় করতে পারে, তাহলে আশা করা যায় এদেশ থেকে ৮০% ক্রাইম এমনিতেই দূর হয়ে যাবে।

আমীরে দাওয়াতুল হকের তিন দিন ব্যাপী কুমিল্লা, ফেনী, নোয়াখালী ও চট্টগ্রাম সফর

কুমিল্লার পাদুয়া বাজার বিশ্বরোড জামিয়াতুসসুন্নাহ মাদরাসা

গত ১১/০১/১১ ইং মঙ্গলবার কুমিল্লা জামিয়াতুস সুন্নাহ মাদরাসায় মজলিসে দাওয়াতুল হকের ইজতিমায় অংশগ্রহণ করেন আমীরে দাওয়াতুল হক, মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান দা. বা.। বাদ ফজর মজলিস শুরু হয়। তিনি সকাল ৮.৩০ মিনিটে মজলিসে উপস্থিত হন এবং প্রায় আড়াই ঘণ্টাব্যাপী বিভিন্ন মাদরাসা থেকে আগত শতশত উলামায়ে কেরাম মুহতামিম, আসাতিযায়ে কেরাম ইমাম ও মুয়াযযিনদের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান পেশ করেন।

ফুলগাজী আশরাফিয়া মাদরাসা
কুমিল্লার ইজতিমা শেষে মঙ্গলবার দুপুর পৌনে একটায় ফুলগাজী আশরাফিয়া মাদরাসায় পৌছেন মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান। নামাযের পূর্বে উপস্থিত উলামায়ে কেরামের সাথে মতবিনিময় করেন। এবং যোহরের নামায সেখানেই আদায় করেন।

ফেনী ছাগলনাইয়া আজিজিয়া মাদরাসা
একই দিন বাদ জহর থেকে আসর পর্যন্ত ফেনী ছাগলনাইয়া আজিজিয়া মাদরাসার আসাতিযায়ে কেরামের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ নসিহত পেশ করেন এবং বাদ আসর মাদরাসায় মসজিদে উপস্থিত মুসল্লী, বিভিন্ন মাদরাসা থেকে আগত উলামায়ে কেরাম, জামেয়ার আসাতিযা এবং ছাত্রদের উদ্দেশ্যে মূল্যবান নসীহত পেশ করেন।

ফেনী জহিরিয়া জামে মসজিদ
একই দিন বাদ মাগরিব জহিরিয়া মসজিদে মজলিসে দাওয়াতুল হকের ইজতিমা অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত উলামায়ে কেরাম এবং মুসল্লীদের উদ্দেশ্যে তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিক দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য পেশ করেন ।

ফেনী লস্করহাট জামেয়া রশিদিয়া মাদরাসা
গত ১২/০১/১১ ইং বুধবার বাদ ফজর ফেনী জামেয়া রশিদিয়া মাদরাসার ছাত্র এবং আসাতিযায়ে কেরামের উদ্দেশ্যে ইলমের ফযিলত এবং এর ধারক-বাহকগণের মর্যাদা ও দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন থাকার ব্যাপারে মূল্যবান নসীহত পেশ করেন মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান।এখানকার প্রোগ্রাম শেষ করে দাওয়াতুল হক কমপ্লেক্স জামেয়া রশিদিয়ার শাখা দাওয়াতুল হক মাদরাসার হিফয বিভাগ পরিদর্শন করেন।

ফেনী শর্শাদি দারুল উলূম ইসলামিয়া মাদরাসা
একই দিন বুধবার বেলা ১১ ঘটিকায় ফেনী শর্শাদি দারুল উলূম ইসলামিয়া মাদরাসায় উলামায়ে কেরাম এবং আসাতিযাদের উদ্দেশ্যে সুন্নতের গুরুত্ব ও দাওয়াতুল হকের কাজকে এগিয়ে নেয়ার ব্যপারে তাৎপর্যপূর্ণ আলোচনা পেশ করেন।

ফেনী লালপোল জামিয়া সুলতানিয়া মাদরাসা
একই দিন দুপুর ১২ ঘটিকার সময় লালপোল জামিয়া সুলতানিয়া মাদরাসায় হযরত আগত উলামায়ে কেরাম, আসাতিযা এবং ছাত্রদের উদ্দেশ্যে মূল্যবান নসিহত পেশ করেন।

বালুয়া চৌমুহনী ইসলামিয়া আরাবিয়া মাদরাসা
লালপোলের প্রোগ্রাম শেষ করে দুপুর পৌনে একটায় আমীরে দাওয়াতুল হক চৌমুহনী ইসলামিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় পৌঁছেন এবং সেখানে উস্তাদদের উদ্দেশ্যে দাওয়াতুল হক সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন।

ফেনী উলামা বাজার মাদরাসা
১২/১/১১ বাদ যোহর ফেনী দারুল উলূম আল হুসাইনিয়া উলামা বাজার মাদরাসায় উপস্থিত মুসল্লী, আগত অসংখ্য উলামায়ে কেরাম, মাদরাসার ছাত্র এবং উস্তাদদের উদ্দেশ্যে তাৎপর্যপূর্ণ আলোচনা পেশ করেন মুহিউস সুন্নাহ আল্লামা মাহমূদুল হাসান।

ফেনী দাগনভুঞা আশরাফুল উলূম মাদরাসা
বাদ আসর আমীরে দাওয়াতুল হক দাগনভুঞা আশরাফুল উলূম মাদরাসায় উলামায়ে কেরাম, মাদরাসার শিক্ষক, ছাত্র এবং উপস্থিত মুসল্লীদের উদ্দেশ্যে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য পেশ করেন।
www.dawatul-haq.com

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১৪৩ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (ভোট, গড়: ৪.০০)

৫ টি মন্তব্য

  1. আল্লাহ পাক ওনার প্রচেষ্টা কবুল করুন । আমীন ।

  2. আল্লাহ পাক হযরতকে সুস্বাস্থ্য ও কল্যাণময়ী জীবন দান করুন। সমগ্র পৃথিবীর সকল আলেম-উলামা ও বুযুর্গবর্গকে আল্লাহ পাক নেক হায়াত দারাজ করুন। পৃথিবীতে আল্লাহ তায়ালার কুরআন ও নবীজী (সাঃ) এর সুন্নাতের আলো কায়েম হোক। সেই মেহনতে আল্লাহ সকলকে অংশগ্রহণের তাওফীক দারুন করুন। সেই সঙ্গে এই ওয়েব সাইটটি যেন দীর্ঘায়ু লাভ করে- আল্লাহ পাকের নিকট সেই কামনা করছি। সকলের নিরন্তর প্রচেষ্টা আল্লাহ কবুল কুরুন।

    humaid

    @mzh_faridi, সহমত।

    mzh_faridi

    @humaid, আন্তরিক সালাম ও অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  3. আল্লাহ তায়ালা হযরতের হায়াতের মাঝে খুব বরকত দান করূন। আর উনার ফয়েজ দিয়ে আমাদেরকে বেশি বেশি উপকৃত হওয়ার তৌফিক দান করুন (আমীন)