লগইন রেজিস্ট্রেশন

কবিরা গুনাহ-২৫ (অসত্য কসম করা। )

লিখেছেন: ' দ্য মুসলিম' @ সোমবার, এপ্রিল ২৬, ২০১০ (৬:৫১ পূর্বাহ্ণ)

আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ,

বিসমিল্লাহির রাহ মানির রাহিম।

*** মহান আল্লাহ পাক পবিত্র কোরআনে কারীমে ঘোষনা করেনঃ “নিশ্চয়ই যারা আল্লাহর নামে কৃত অঙ্গীকার এবং নিজেদের প্রতিজ্ঞা সামান্য মূল্যে বিক্রয় করে, পারলোকে তাদের কিছুই প্রাপ্য থাকবে না, কেয়ামতের দিন আল্লাহ তাদের সাথে কথা বলবেন না, তাদের দিকে করুনার দৃষ্টিতে তাকাবেন না এবং তাদেরকে পরিশুদ্ধও করবেন না, বস্তুত তাদের জন্য তো রয়েছে যন্ত্রনাদায়ক শাস্তি।”-সুরা আলে ইমরান-৭৭।
এ আয়াতের শানে নুযুল প্রসঙ্গে ইমাম ওয়াহেদী রঃ বলেনঃ একবার এক খন্ড জমির অধিকার নিয়ে দুই লোকের মধ্য বিরোধ দেখা দিলে মীমাংসার জন্য তারা রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর দরবারে হাজির হয়। বিবাদী যখন স্বীয় দাবীর সপক্ষে শপথ করার ইচ্ছা ব্যক্ত করে, এমনি সময় আল্লাহ তায়ালা এ আয়াতটি নাযিল করেন। ফলে তাকে শপথ থেকে বিরত রাখা হয় এবং জমির উপর বাদীর অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়।

*** হযরত আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাঃ বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ “যে ব্যক্তি অন্যায় ভাবে অপরের সম্পদ হস্তগত করার জন্য অসত্য কসম করে, আল্লাহর সাক্ষাতে সে আল্লাহকে রাগান্বিত অবস্হায় দেখবে।” (বোখারী, মুসলিম, আবু দাউদ, তিরমিযী)

*** হযরত আবু উমামা রাঃ বলেনঃ আমরা রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর দরবারে বসা ছিলাম। তিনি বললেনঃ “যে লোক নিজের শপথ দ্বারা কোন মুসলমানকে বৈধ অধিকার থেকে বঞ্চিত করে, আল্লাহ তার জন্য জাহান্নাম অবধারিত এবং জান্নাত হারাম করে দেন।”এক ব্যক্তি আরজ করলো, ইয়া রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! তা যদি খুবই সামান্য বিষয় হয়? তিনি বললেনঃ “যদি একটা গাছের কাটা ডালও হয় তবুও।” (মুসলিম, নাসায়ী)

*** হযরত আবু যর রাঃ বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ “কেয়ামতের দিন তিনি জনের সাথে আল্লাহ পাক কথা বলবেন না। তাদেরকে পবিত্র করবেন না এবং তাদের জন্য রয়েছে যন্ত্রনাদায়ক শাস্তি।” একথা তিনি তিনবার বললেন। হযরত আবু যর রাঃ বললেনঃ “ইয়া রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! সেই চরম ক্ষতিগ্রস্হ ও ভাগ্যাহত লোকগুলো কারা?” রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেনঃ “যে লোক পায়ের গিরার নীচে কাপড় পরে, যে দান বা অনুগ্রহ কে পরে খোটা দিয়ে লজ্জা দেয় এবং অসত্য শপথ করে পণ্য দ্রব্য বিক্রি করে।” (মুসলিম, তিরমিযী ও আবু দাউদ)

*** রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরো বলেনঃ “কবীরা গুনাহ হচ্ছে, আল্লাহর সাথে অংশীদার স্হির করা, মাতা-পিতার অবাধ্য হওয়া, আত্মহত্যা করা এবং অসত্য কসম করা।” (বুখারী)

প্রসঙ্গঃ আল্লাহ ছাড়া আর কারো নামে শপথ করা।

*** হযরত ইবনে ওমর রাঃ বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ “আল্লাহ পাক তোমাদেরকে বাপ দাদার নামে শপথ করতে নিষেধ করেছেন। একান্তই যদি শপথ করতে হয়, তবে (শুধু) আল্লাহর নামে শপথ করবে, না হয় নিরব থাকবে।” (বুখারী, মুসলিম, আবু দাউদ, তিরমিযী ও নাসায়ী)

*** হযরত আবদুর রহমান বিন সামুরা রাঃ বর্ণনা করেনঃ রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ “তোমরা প্রতিমা কিংবা তোমাদের বাপ দাদার নামে কসম খেয়ো না।” (মুসলিম)

*** হযরত ইবনে ওমর রাঃ জনৈক ব্যক্তিকে “কাবার শপথ” করতে শুনে বললেনঃ “আল্লাহ ছাড়া আর কারো শপথ করো না।” কেননা আমি শুনেছি, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ “যে ব্যক্তি আল্লাহ ছাড়া আর কারো নামে শপথ করলো, সে কুফরী বা শিরক করলো।” (তিরমিযী, ইবনে হেব্বান ও হাকেম।)

আল্লাহ পাক আমাদেরকে সকল প্রকার কবীরাগুনাহ থেকে বেঁচে থাকার তৌফিক দিন। আমিন।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১৬৪ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (ভোট, গড়: ৫.০০)