লগইন রেজিস্ট্রেশন

প্রকৃতির বৈচিত্র্য: ডারউইনবাদীদের নাইটমেয়ার-৪

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ শনিবার, জানুয়ারি ১৫, ২০১১ (৫:২৭ পূর্বাহ্ণ)

বিবর্তন তত্ত্ব অনুযায়ী মাছ জাতীয় জলজ কোন একটি [?] প্রাণী থেকে ধাপে ধাপে বিবর্তিত হয়ে একটি [?] উভচর প্রাণী হয়েছে, যদিও অসংখ্য প্রকারের জলজ প্রাণী রয়েই গেছে। সেই উভচর প্রাণী থেকে আবার অনেক প্রকারের উভচর প্রাণী বিবর্তিত হয়েছে, যদিও তা কী করে সম্ভব কে জানে! কোন একটি উভচর প্রাণী থেকে আবার ধাপে ধাপে বিবর্তিত হয়ে একটি সরীসৃপ হয়েছে, যদিও অনেক প্রকারের উভচর প্রাণী রয়েই গেছে। সেই সরীসৃপ থেকে আবার অনেক প্রকারের সরীসৃপ বিবর্তিত হয়েছে, যদিও তা কী করে সম্ভব কে জানে! কোন একটি সরীসৃপ থেকে আবার ধাপে ধাপে বিবর্তিত হয়ে একটি পাখি হয়ে আকাশে উড়তে শিখেছে, যদিও অনেক প্রকারের সরীসৃপ রয়েই গেছে। সেই পাখি থেকে আবার অনেক প্রকারের পাখি বিবর্তিত হয়েছে, যদিও তা কী করে সম্ভব কে জানে! উল্লেখ্য যে, উড়ন্ত প্রাণীদের মধ্যে স্তন্যপায়ী প্রাণীও আছে, যেমন বাদুড়। সংক্ষেপে ডারউইনবাদীদের দাবি বা বিশ্বাস এরকম:

মাছ –> উভচর প্রাণী –> সরীসৃপ –> পাখি

দেখে দেখে আপাতদৃষ্টিতে কাছাকাছি প্রজাতিগুলোকে এভাবে সাজানো হয়েছে! তারা যেভাবে সাজিয়েছেন তার উল্টো অনুক্রমে কিন্তু তারা বিশ্বাস করেন না, যদিও বিবর্তনকে অন্ধ-অচেতন ও উদ্দেশ্যহীন প্রাকৃতিক নির্বাচনের ফলাফল বলে দাবি করা হয়। এগুলোকেই আবার বিজ্ঞানের নামে প্রতিষ্ঠিত সত্য হিসেবে চালিয়ে দিয়ে ইতোমধ্যে মিলিয়ন মিলিয়ন অসচেতন লোকজনের মস্তক ধোলাই করা হয়েছে এবং হচ্ছে। এমনকি বিবর্তনবাদের উপর ভিত্তি করে অনেকেই নাস্তিক হয়েছে।

নিচের ভিডিওতে ময়ূর এবং ময়ূরের পেখম লক্ষ্য করুন। মাথার উপর ফুলের মতো কারুকার্যখচিত সুন্দর পালকও লক্ষণীয়। প্রশ্ন হচ্ছে অন্য কোন প্রজাতি থেকে এলোমেলো পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক নির্বাচনের মাধ্যমে ধাপে ধাপে ময়ূরের অতি সূক্ষ্ম পালক ও বিশাল পেখম আদৌ বিবর্তিত হওয়া সম্ভব কিনা। ময়ূরের জৈব বিবর্তনের সাথে সাথে কেন, কীভাবে, ও কোথা থেকে কারুকার্যখচিত পালক ও পেখম বিবর্তিত হবে?

নিচের ভিডিওগুলোতে অভাবনীয় সুন্দর কিছু পাখির নমুনা দেখুন। সরীসৃপ জাতীয় প্রজাতি থেকে এলোমেলো পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক নির্বাচনের মাধ্যমে এই ধরণের উড়ন্ত পাখি এবং রং-বেরং এর কারুকার্যখচিত পালক কেন ও কীভাবে বিবর্তিত হবে। কোথায় সরীসৃপ প্রজাতি আর কোথায় পাখি প্রজাতি! দুই প্রজাতির মধ্যে আকাশ-পাতাল তফাৎ।

আপনারা নিশ্চয় জলজ প্রাণী, উভচর প্রাণী, সরীসৃপ, ও পাখির মধ্যে পার্থক্য জানেন। পার্থক্যগুলো মাথায় রেখে এবার নিচের পয়েন্টগুলো বিবেচনা করুন:

-পানিতে অসংখ্য প্রকারের মাছ ও অন্যান্য জলজ প্রাণী আছে। সেই অসংখ্য প্রকারের জলজ প্রাণী যে কোথা থেকে ও কীভাবে বিবর্তিত হয়েছে বা হওয়া সম্ভব, শুধু এই প্রশ্নের জবাবই ডারউইনবাদীরা দিতে পারবেন না। ফলে ধরেই নেয়া যাক যে পানিতে ইতোমধ্যে জলজ প্রাণী রয়ে গেছে। আমরা সবাই জানি পানি থেকে ডাঙ্গায় উঠানোর কিছুক্ষণের মধ্যেই অধিকাংশ জলজ প্রাণী মারা যায়। আর মারা না গেলেও একটি জলজ প্রাণী কেন ও কীভাবে ধাপে ধাপে উভচর প্রাণীতে বিবর্তিত হবে?

-এবার ধরে নেয়া যাক প্রকৃতিতে ইতোমধ্যে উভচর প্রাণী রয়ে গেছে। তো সেই উভচর প্রাণী থেকে কেন ও কীভাবে ধাপে ধাপে সরীসৃপ বিবর্তিত হবে? উভচর প্রাণী থেকে ধাপে ধাপে সরীসৃপ বিবর্তিত হওয়ার প্রমাণই বা কোথায়?

-এবার ধরে নেয়া যাক প্রকৃতিতে ইতোমধ্যে সরীসৃপও আছে। সেই সরীসৃপ থেকে কেন ও কীভাবে ধাপে ধাপে একদিন পাখি হয়ে আকাশে উড়তে শিখবে? ডারউইনবাদীরা কি সরীসৃপ আর পাখির মধ্যে পার্থক্য জানে না? সরীসৃপ থেকে পাখি বিবর্তিত হতে হলে কতগুলো ধাপ অতিক্রম করতে হবে? সেই ধাপগুলো কেমন হবে?

উপসংহার: জলজ প্রাণী থেকে ধাপে ধাপে উভচর প্রাণী, উভচর প্রাণী থেকে ধাপে ধাপে সরীসৃপ, এবং সরীসৃপ থেকে ধাপে ধাপে পাখি হয়ে আকাশে উড়তে শিখা সম্ভব নয়, বাস্তবে এমন কিছু ঘটতে দেখা যায় না, এবং এই ধরণের বিবর্তনের পক্ষে কোন প্রমাণ নাই। যে দু-একটি তথাকথিত প্রমাণ [মিসিং লিঙ্ক] দেখানো হয়েছে তার উপর ভিত্তি করে কোনাভাবেই এতবড় উপসংহারে পৌছা যাবে না। ফলে জলজ প্রাণী, উভচর প্রাণী, সরীসৃপ, ও পাখি প্রজাতির আলাদা আলাদা উৎস থাকতে হবে। আর আলাদা আলাদা উৎস থাকতে হলে বিবর্তন তত্ত্ব ভুল প্রমাণিত হয়।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
৯৮ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)

৪ টি মন্তব্য

  1. এক জন খাটি মুসলমান হিসবে বিবর্তনবাদে বিশ্বাস করা অযৌক্তিক। বির্বতনবাদের ধারা অনুসারে যদি বানর থেকেই মানুষ হত, তাহলে আজ আমাদের সুন্দরবনের বানর সমাজ কেন মানুষ সমাজে পরিনত হয়না? এখন কি লেজ খসে পরার জন্য প্রকৃতি থেকে প্রয়োজনীয় উপাদান হারিয়ে গেছে?

  2. যারা বিশ্বাস করে মানুষ বানর থেকে সৃষ্টি তাদের পূর্ব পূরুষ বানর। সুতরাং তারা বানরের ঘরের………………। আমরা বিশ্বাস করি মানুষকে আল্লাহ সৃষ্টির সেরা জীব মানুষ হিসেবেই শুরু থেকেই সৃষ্টি করেছেন।

  3. [...] অন্যান্য পর্ব: [পর্ব-২|পর্ব-৩|পর্ব-৪|পর্ব-৫|পর্ব-৬|পর্ব-৭|পর্ব-৮|পর্ব-৯|পর্ব-১০] [...]

  4. [...] অন্যান্য পর্ব: [পর্ব-২|পর্ব-৩|পর্ব-৪|পর্ব-৫|পর্ব-৬|পর্ব-৭|পর্ব-৮|পর্ব-৯|পর্ব-১০] ! রিপোর্ট করুন ! Processing your request, Please wait…. [...]