লগইন রেজিস্ট্রেশন

প্রশ্ন: (৩) রাসুল (সাঃ) কে জাগ্রত অবস্থায় দেখতে পাওয়া সম্পর্কে।

লিখেছেন: ' সাপোর্ট টিম [ পিস ইন ইসলাম ]' @ মঙ্গলবার, মার্চ ৮, ২০১১ (১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ)

প্রশ্নঃ অনেকে বলে থাকেন দেওবন্দের আলেমগণ নীচের আকীদা পোষন করেন। নীচের আকীদাটি সঠিক কিনা জানালে খুশি হব।
রাসুল (সাঃ) জাগ্রত অবস্থায় দেখতে পাওয়া ।
প্রশ্নকারী: যুবায়ের

উত্তরঃ উলামায়ে দেওবন্দের আকীদা সম্পর্কিত বিভিন্ন কিতাব অধ্যয়ন করে এ সিদ্দান্তে উপনীত হয়েছি যে, দেওবন্দের আলেমগন এ ধরনের ভিত্তিহীন আকীদা পোষন করেন না।
কারন কেহ যদি দাবি করে যে, সে রাসুল (সাঃ) কে জাগ্রত অবস্থায় দেখেছে, তাহলে স্বাভাবিক ভাবেই এর জন্য আবশ্যক হলো যে, আলস্নাহ তায়ালা রাসুল (সাঃ) কে কবর থেকে বের করে এনে দুনিয়ার স্বাভাবিক জীবন দান করেছেন। অথচ কবর থেকে বের হয়ে আসা ও পুনর্জীবন পাওয়া কিয়ামতের পুর্বে অস‌ম্ভব। কিয়ামতের পুর্বে কেহই পুনরত্তিত হবেনা। সুতরাং এ ধরনের আকীদা তথা “রসুলকে জাগ্রত অবস্থায় দেখতে পাওয়া” সম্পুর্ণ ভিত্তিহীন। দেওবন্দের কোন আলেম এ ধরনের আকীদা পোষন করেননা। (জামাতুত তাবলীগ পৃঃ ২১২)
তবে রাসুল (সাঃ) কে স্বপ্নযোগে দেখা প্রমাণিত সত্য। আর উলামায়ে দেওবন্দ এ ধরনের আকীদা পোষন করেন। যেমন ইমাম বুখারী (রহঃ) স্বপ্নযোগে রাসুল (সাঃ) কে দেখার ঘটনা, যাহা সঠিক সুত্রে বর্ণিত এবং যে ঘটনার মাধ্যমে তিনি বুখারী শরীফ লেখার উপর উদ্ভুদ্ধ হয়েছিলেন। এমন আরও ঘটনা রয়েছে যা প্রমানিত সত্য। (হাদয়ুস্‌ সারীঃ পৃঃ৯, আলফাতহুর রাব্বানী খন্ডঃ ১৭ পৃষ্ঠাঃ২২৪)
এখন প্রশ্ন হলো যে, মুজিযা বা কারামতের মাধ্যমে রাসুল (সাঃ) কে দেখা যাবে কি না? এ ব্যাপারে উলামায়ে দেওবন্দের আকীদা কি?
তার উত্তর হলো, এ ব্যাপারে দেওবন্দের অনুসারী সকল আলেমই এ আকীদা পোষন করেন যে, উভয়টার মাধ্যমেই রাসুলকে দেখা সম্ভব।
কারণ মুজিযা যদিও নবীগণেরই বৈশিষ্ট, তাদের ছাড়া অন্য কারো থেকেই মুজিযা প্রকাশ পাবেনা। এবং আমাদের নবী (সাঃ) ও কিয়ামতের পুর্বে ফিরে আসবেন না, কিন্তু এই উম্মতের ওলী বা যাদের থেকে কারামত প্রকাশ পাবে, সেগুলি রাসুল (সাঃ) এর মুজিযারই অন্তর্ভুক্ত। কারণ রাসুল (সাঃ) এর উম্মতের কারো থেকে কারামত প্রকাশ পাওয়াটা রাসুল (সাঃ) নবুওয়তের সত্যতার প্রমান বহন করে। আর এটাই মুজিযার উদ্দেশ্য।(শরহুল আকাঈদ আন-নাসাফিয়্যাহ পৃঃ১৪৪-১৪৮)
আর কারামত এর মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালার নৈকট্যশীল বান্দাগন (নবীগণ নন এমন) যারা আল্লাহর হুকুম এবং নবীজির তরীকা মত চলে, নাফরমানী করেনা এবং যারা আল্লাহকেই স্বীয় কর্মের অভিভাবক মনে করে ততা ওলীগণ সহ সকলেই রাসুলকে দেখতে পারেন। তবে তা বিশ্বস্ত সুত্রে ও নির্ভরযোগ্য বর্ণনার ভিত্তিতে সত্য বলে প্রমাণিত হতে হবে। (আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আকীদা পৃঃ৮৭)
এমনি ভাবে কাশফ এর মাধ্যমেও রাসুল (সাঃ) কে দেখা যেতে পারে। এ বিষয়ে আমাদের মাশায়েখে কেরামের বিশ্বব্যাপি সু প্রসিদ্দ ও প্রচলিত বহু কিতাব রয়েছে, প্রয়োজনে সেগুলি দেখে নিতে পারেন। এমনি ভাবে এ প্রসঙ্গে আরও বিস্তারিত জানতে হলে আমাদের বিজ্ঞ মাশায়েখে কেরামের কাছ থেকে জেনে নেয়ার অনুরুধ রইল।
আল্লাহ পাক আমাদেরকে সঠিক জ্ঞান অর্জন করার তাওফিক দান করুন (আমীন)
উত্তর দাতা
মাওঃ মোঃ ছিফাতুলস্নাহ
হাদিস গবেষনা বিভাগ, ২য় বর্ষ
ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ,
বসুন্ধরা, ঢাকা।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১৮৬ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)

Comments are closed.