লগইন রেজিস্ট্রেশন

আল্লাহ আছেন কি নাই ?

লিখেছেন: ' রাতদিন' @ সোমবার, নভেম্বর ২৩, ২০০৯ (৭:৩৯ পূর্বাহ্ণ)

মুসলিম ঃ তুমি কি ঈশ্বরে বিশ্বাস কর ?

নাস্তিক ঃ না করি না, কোন ঈশ্বর নাই । তুমি কি আমার কাছে প্রমান করতে পারবে ?

মুসলিমঃ পৃথিবী, মহাবিশ্ব, চন্দ্র , সূর্য , গ্রহ, নক্ষত্র ইত্যাদি ;;;;;; সবাই প্রমান করে একজন ঈশ্বর আছেন ।

নাস্তিকঃ আমি কি ঈশ্বরকে দেখতে বা শুনতে পারি ?

মুসলিমঃ না, তুমি পার না । তবে আমাদের কাছে ঈশ্বরের কথা আল কোরান আছে । যা আরবি ভাষায় নাজিল হয়েছে । আরব কবিদের চেল্যঞ্জ জানিয়েছে । কিন্তু তারা খুব ভাল কবি হলেও তা পারে নি । বর্তমানেও কিছু ব্যক্তি আপ্রাণ চেষ্টা করতে ছে , কিন্তু এগুলা তাদের নিজেদের নিয়ে কৌ্তুক করার মত হইতেছে ।

নাস্তিকঃ তাহলে কোরান শুধু আরবের জন্য ।

মুসলিমঃ না , কোরান সব মানুষের জন্য । আরবি ভাষা জানা থাকলে বুঝতে সহজ হয় । অন্য ভাষায় অনুবাদ আছে । ঐ গুলি পড়লেই হয় । কিন্তু , আনুবাদ যেহেতু মানুষের তাই অনুবাদে কিছু ভুল থাকে । কিন্তু আসল বিষয় বুঝা যায়, যদি বুঝতে চান। কোরানের মহত্ব, বুঝা যায় সহজেই, যদি বুঝতে চান ।

নাস্তিকঃ কোরানের মহত্বের একটি প্রমান দেন ?

মসুলমানঃ যেমন কোরান হোমোসেক্সিয়ালিটি , অপেন সেক্স নিষিদ্ধ করেছে । বর্তমানে আপনি হোমোসক্সিয়ালিটি আর অপেন সেক্স এর জন্য এইডসে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু দেখবেন ।

নাস্তিকঃ আমরা ঈশ্বরের আস্তিত্ব সম্পর্কে কথা বলতে ছিলাম । এই মহাবিশ্ব ঈশ্বর কর্তৃক সৃষ্টি , তাহলে ঈশ্বরকে কে সৃষ্টি করেছে ?

মসুলমানঃ ঈশ্বর সৃষ্টি হতে পারেন না । কারন তিনি চিরজীবি, চিরন্তন ।

নাস্তিকঃ আমি বলতে পারি মহাবিশ্ব চিরজীবি ।

মসুলমানঃ মহাবিশ্ব পরিবর্তনশীল । তাই তা চিরজীবি হতে পারে না ।

নাস্তিকঃ তুমি আমাকে কনভিন্স করতে পারো নি ।

মসুলমানঃ আমি পারবোও না । আমি শুধু বলতে পারি ভাল করে কোরান পড় । আমার চৌদ্দ পূরুষ চাইলেও, তুমাকে বুঝাইতে পারবো না । তুমি জ্ঞানী, নিজেই শুদ্ধমনে কোরান পড় ।

নাস্তিকঃ কোরান আমাদের সম্পর্কে কি বলে ?

মসুলমানঃ এখানে দেখুন ,
[sb] “(তারা বলে, কিসের আবার পুনরুত্থান) দুনিয়ার জীবনইতো হচ্ছে আমাদের একমাত্র জীবন, আমরা (এখানে) মরবো, (এখানেই) বাঁচবো, আমাদের কখনই পুনরুত্থিত করা হবে না”। (সূলা আল-মুমিনূন : ৩৭)

“আমরা চাইলে এধরণের কথাতো নিজেরাও বলতে পারি, এগুলো তো আগের লোকদের উপকথা ছাড়া আর কিছুই নয়”। (সূরা আল আনফাল : ৩১)

“আমরা তো দেখছি যে, তুমি সুস্পষ্ট গুমরাহীতে লিপ্ত রয়েছ” (সূরা আল আ’রাফ: ৬০)
“আমরা তো তোমাকে নির্বুদ্ধিতায় লিপ্ত মনে করি” (সূরা আল আ’রাফ: ৬৭)
“তোমরা যা মেনে নিয়েছ আমরা তা অস্বীকার করি, অমান্য করি” (সূরা আল আ’রাফ: ৭৬)

“আচ্ছা, তাহলে নিয়ে আস সেই আযাব, যার তুমি আমাদেরকে ভয় দেখাচ্ছ”। (সূরা আল আরাফ: ৭০)
“এই লোকদিগকে তো এদের দ্বীন (ধর্ম) ধোকার কবলে নিক্ষিপ্ত করেছে” (সূরা আল আনফাল: ৪৯)
[/sb]
নাস্তিকঃ আমি নাস্তিক হলেও, বলতে বাধ্য হচ্ছি কোরান আমাদের সম্পর্কে সত্য কথা বলে ।

মসুলমানঃ তুমি জ্ঞানী, নিজেই শুদ্ধমনে কোরান পড় । আমি শুধু এই আহব্বান জানাই ।

{নিচের এই লেখা থেকে লেখা , কিছুটা আমার নিজের মত করে

Wael El-Manzalawy
Egyptian Writer

Article Source: http://EzineArticles.com/?expert=Wael_El-Manzalawy
আমি পেয়েছি http://alquran-online.net/content/view/101/1/
আর নাস্তিকদের সম্পর্কে কোরানের আয়াত গুলি আমি পেয়েছি ব্লাগার উমর ভাইয়ের এই লেখা থেকে
http://www.somewhereinblog.net/group/islam/29020557 }

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
২৮৬ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)

৩ টি মন্তব্য

  1. পড়লাম, অনুবাদটা ভালো হয়েছে , তবে ইজিপশিয়ান রাইটারেরে যুক্তি বা ব্যাখ্যা কনভিনসিভ মনে হয় নাই ।

    আপনি আরজ আলী মাতুব্বেরে লেখা পড়েছেন । তাদের মতো লেখার উত্তর এগুলো দিয়ে দেয়া একটু টাফ ।

  2. মুসলমানঃ তুমি জ্ঞানী, নিজেই শুদ্ধমনে কোরান পড় । আমি শুধু এই আহব্বান জানাই

    আমারো একি আহ্বান। (Y)