লগইন রেজিস্ট্রেশন

যেকোন বিপদে কোরআনের যে আয়াত আমাদের শান্ত্বনা ও সাহস যোগায়

লিখেছেন: ' তালহা তিতুমির' @ সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১, ২০১০ (৭:৩৯ অপরাহ্ণ)

এবং আমি অবশ্যই তোমাদের পরীক্ষা করবো কিছুটা ভয়,ক্ষুধা, জান ও মালের ক্ষতি ও ফল-ফসল বিনষ্টের মাধ্যমে। তবে সুসংবাদ দাও সবরকারীদের। যখন তারা বিপদে পতিত হয়, তখন বলে, নিশ্চয় আমরা সবাই আল্লাহর জন্যে এবং আমরা সবাই তাঁরই সান্নিধ্যে ফিরে যাবো। তারা সেসমস্ত লোক, যাদের প্রতি আল্লাহর অফুরন্ত অনুগ্রহ ও রহমত রয়েছে এবং এসব লোকই হেদায়েত প্রাপ্ত। (আল-বাকারা, আয়াত ১৫৫ থেকে ১৫৭)

ব্যাখ্যা: পৃথিবীতে এমন মানুষ পাওয়া অসম্ভব যিনি জীবনে কখনো দু:খ-কষ্টে পতিত হননি। মানুষ সবসময় অতীতে যা হারিয়ে গেছে তার জন্য আফসোস করে এবং ভবিষ্যতে কি হবে এই ভেবে দুশ্চিন্তা করে। অতীতের জন্যে হা-হুতাশ করতে গিয়ে দু:খে অনেকের বুক ফেটে যায় । কিন্তু ঈমানদার ব্যাক্তিরা অতীতের কথা ভেবে হতাশ হয় না কিংবা ভবিষ্যতে কি হবে তা ভেবে অযথা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয় না। কারণ তারা জানে এ পৃথিবীর জীবন ক্ষণস্থায়ী এবং মানুষের জন্যে পরীক্ষাক্ষেত্র। এ জন্যই মহানবী [স:] বলেছেন- ‘আল্লাহর কাছেই সকল বিলুপ্ত বিষয়ের প্রতিদান আছে এবং তার কাছেই সমস্ত কিছুর প্রত্যাবর্তন’। অতএব আমাদের উচিত সর্বাবস্থায় আল্লাহকে স্মরণ করা এবং বিপদে ধৈর্য ও নামাযের মাধ্যমে আল্লাহর সাহায্য প্রার্থনা করা।

Processing your request, Please wait....
  • Print this article!
  • Digg
  • Sphinn
  • del.icio.us
  • Facebook
  • Mixx
  • Google Bookmarks
  • LinkaGoGo
  • MSN Reporter
  • Twitter
১৬১ বার পঠিত
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars ( ভোট, গড়:০.০০)

১ টি মন্তব্য

  1. অতএব আমাদের উচিত সর্বাবস্থায় আল্লাহকে স্মরণ করা এবং বিপদে ধৈর্য ও নামাযের মাধ্যমে আল্লাহর সাহায্য প্রার্থনা করা।</strong

    ভালো বলেছেন। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে সরল সঠিক পথ পদর্শন করুন। আমিন।