লগইন রেজিস্ট্রেশন

লেখক আর্কাইভ

 

প্রকৃতির বৈচিত্র্য: ডারউইনবাদীদের নাইটমেয়ার-৪

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ শনিবার, জানুয়ারি ১৫, ২০১১ (৫:২৭ পূর্বাহ্ণ)

বিবর্তন তত্ত্ব অনুযায়ী মাছ জাতীয় জলজ কোন একটি [?] প্রাণী থেকে ধাপে ধাপে বিবর্তিত হয়ে একটি [?] উভচর প্রাণী হয়েছে, যদিও অসংখ্য প্রকারের জলজ প্রাণী রয়েই গেছে। সেই উভচর প্রাণী থেকে আবার অনেক প্রকারের উভচর প্রাণী বিবর্তিত হয়েছে, যদিও তা কী করে সম্ভব কে জানে! কোন একটি উভচর প্রাণী থেকে আবার ধাপে ধাপে বিবর্তিত হয়ে একটি সরীসৃপ হয়েছে, যদিও অনেক প্রকারের উভচর প্রাণী রয়েই গেছে। সেই সরীসৃপ থেকে আবার অনেক প্রকারের সরীসৃপ বিবর্তিত হয়েছে, যদিও তা কী করে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

প্রকৃতির বৈচিত্র্য: ডারউইনবাদীদের নাইটমেয়ার-৩

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ মঙ্গলবার, জানুয়ারি ৪, ২০১১ (২:৪৮ পূর্বাহ্ণ)

ডারউইনবাদীরা মন্ত্রের মতো একটি বুলি জপেন, আর সেটি হচ্ছে Evolution is a fact. এই মন্ত্র জপে তারা ডারউইনের বিবর্তন তত্ত্বকেও প্রতিষ্ঠিত সত্য হিসেবে প্রচার করার চেষ্টা করেন। ডারউইনবাদীদের অন্ধ অনুসারী ছাড়া অনেকের কাছেই তাদের এই মন্ত্রকে উদ্ভট মনে হবে এই ভেবে যে, তারা দিনে-দুপুরে সবার সামনে এমন দাবি করেন কী করে! তবে ব্যাপারটাকে একটু ক্ষতিয়ে দেখলেই তাদের শুভঙ্করের ফাঁকি ধরা পড়ে। তারা হয়ত মিথ্যাচার করেন না, তবে শুভঙ্করের ফাঁকির মাধ্যমে অসচেতন লোকজনকে বিজ্ঞানের নামে বোকা বানানোর চেষ্টা করা .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

প্রকৃতির বৈচিত্র্য: ডারউইনবাদীদের নাইটমেয়ার-২

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ বুধবার, ডিসেম্বর ২৯, ২০১০ (১১:৪৫ অপরাহ্ণ)

ডারউইনবাদীরা কথায় কথায় ‘প্রকৃতি’ বা ‘প্রাকৃতিক নিয়ম’ জাতীয় অস্পষ্ট শব্দ আউড়িয়ে কিছু একটা প্রমাণ করার চেষ্টা করে থাকেন। এমনকি তারা প্রাণীজগত থেকে খুঁজে খুঁজে কিছু উদাহরণ নিয়ে এসে বলার চেষ্টা করেন যে, প্রকৃতিতে যেহেতু অমুক-তমুক আছে সেহেতু সেটি বৈজ্ঞানিক বা প্রাকৃতিক। এভাবে প্রকৃতি থেকে উদাহরণ দিয়ে কোন কিছুকে মনুষ্য সমাজেও বৈধতা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। তবে প্রকৃতি থেকে উদাহরণ দিয়ে কিছু প্রমাণ করার চেষ্টা যে নিজের পায়ে কুড়াল মারার সামিল – সেটা তারা বোঝেন কিনা কে জানে। উদাহরণস্বরূপ, তাদের বিশ্বাস .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

প্রকৃতির বৈচিত্র্য: ডারউইনবাদীদের নাইটমেয়ার-১

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১০ (৩:৫৪ অপরাহ্ণ)

ডারউইনবাদীদের দাবি অনুযায়ী বিবর্তন তত্ত্ব প্রাণীজগত ও উদ্ভিদজগতের বৈচিত্র্যকে ব্যাখ্যা করে। অথচ একটু গভীরভাবে ভেবে দেখলে দেখা যায় প্রাণীজগত ও উদ্ভিদজগতের বৈচিত্র্যই আসলে বিবর্তন তত্ত্বের জন্য নাইটমেয়ার। কেননা প্রাণীজগত ও উদ্ভিদজগত যত বেশী বৈচিত্র্যময় হবে, তত বেশী কল্পকাহিনীর আশ্রয় নিতে হবে সেই সব বৈচিত্র্যময়তাকে ব্যাখ্যার জন্য। প্রাণীজগত ও উদ্ভিদজগত বরঞ্চ সরলরৈখিক হলেই হয়ত কিছু বলার থাকতে পারতো। কিন্তু বাস্তবতা একেবারেই ভিন্ন। বাস্তবে প্রাণীজগত ও উদ্ভিদজগত এত বেশী বৈচিত্র্যময় ও বিষমরৈখিক যে, বৈজ্ঞানিক প্রমাণ তো দূরে থাক, প্রতি পদে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

ডারউইনবাদীদের নিয়ে যৌক্তিক বিনোদন ব্লগ

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ রবিবার, নভেম্বর ২১, ২০১০ (১২:০০ পূর্বাহ্ণ)

ব্লগটিকে ডারউইনবাদীদের জন্য সাধারণভাবে এবং বাংলা ডারউইনবাদীদের জন্য বিশেষভাবে উৎসর্গীকৃত। আমার লেখাতে ‘ডারউইনবাদী’ বলতে তাদেরকেই বুঝানো হয় যারা ডারউইনের তত্ত্বকে বিজ্ঞানের নামে এই মহাবিশ্বের স্রষ্টা ও জুদায়ো-খ্রীষ্টান-ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে প্রচার করে – ডারউইনের তত্ত্বের সত্যতা নিয়ে সংশয়কারীদের বিরুদ্ধে ফতোয়া দেয় – এবং গালিগালাজ ও ব্যক্তি আক্রমণ থেকে শুরু করে দলবদ্ধ আক্রমণ পর্যন্ত করা হয়। যদিও ডারউইনবাদীদের নিয়ে লিখতে গেলে বিনোদনের কোন শেষ নেই তথাপি ব্লগটিকে নির্দিষ্ট কিছু বিনোদনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা হবে। উল্লেখ্য যে, শিরোনামে ‘বিনোদন .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বিবর্তনবাদ তত্ত্ব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা – ৯

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ সোমবার, অগাষ্ট ১৬, ২০১০ (৯:৪১ অপরাহ্ণ)

বিবর্তনবাদ তত্ত্ব সম্পর্কে যাদের তেমন কোন ধারণা নাই – বিশেষ করে মুদ্রার অপর পিঠ সম্পর্কে – তারা এই সিরিজ একটু মনোযোগ দিয়ে পড়লেই সম্যক ধারণার পাশাপাশি অনেক কিছুই পরিষ্কার হয়ে যাবে। তারপর যে কোন বই-পুস্তক বা লেখা পড়া যেতে পারে। পাঠকদের সুবিধার জন্য এই পর্বে বিবর্তনবাদ তত্ত্বের কিছু মৌলিক বিষয় ও অসারতাকে সংক্ষেপে তুলে ধরা হচ্ছে।

১. বিবর্তনবাদ তত্ত্বের মূল মন্ত্র হচ্ছে স্রষ্টার কোন ভূমিকা ছাড়াই ‘উদ্দেশ্যহীন পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক নির্বাচন’ এর মাধ্যমে সকল প্রকার প্রজাতির বিবর্তন – যেটি আসলে নাস্তিক্য .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বিবর্তনবাদ তত্ত্ব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা – ৮

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ রবিবার, জুলাই ১৮, ২০১০ (১২:১৫ অপরাহ্ণ)

শুধুমাত্র এই পৃথিবীর বুকেই মিলিয়ন মিলিয়ন প্রকারের জীব-জন্তু ও উদ্ভিদ প্রজাতি আছে। এ পর্যন্ত কত মিলিয়ন প্রজাতি যে বিলুপ্ত হয়ে গেছে তার সঠিক কোন হিসাব নাই। তাদের মধ্যে হাজার হাজার প্রকারের ফল-মূলের গাছ আছে। হাজার হাজার প্রকারের ফুলের গাছ আছে। হাজার হাজার প্রকারের ফল-ফুল-বিহীন গাছ আছে। লক্ষ লক্ষ প্রকারের মাছ ও অন্যান্য জলজ প্রাণী আছে। হাজার হাজার প্রকারের কীট-পতঙ্গ আছে। হাজার হাজার প্রকারের সরীসৃপ আছে। হাজার হাজার প্রকারের পাখি আছে। হাজার হাজার প্রকারের সরাসরি ডিম পাড়া অস্তন্যপায়ী প্রজাতি আছে। হাজার .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বিবর্তনবাদ তত্ত্ব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা – ৭

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ সোমবার, জুলাই ৫, ২০১০ (৯:২৪ অপরাহ্ণ)

পাঠক! কিছুক্ষণের জন্য ব্যাকটেরিয়া-সদৃশ অতি ক্ষুদ্র ও সরল একটি জীব কল্পনা করুন। সারা পৃথিবীতে একটি মাত্র ব্যাকটেরিয়া-সদৃশ জীব। জীব বলতে সেই ব্যাকটেরিয়া ব্যতীত আর কিছুই নেই। সেই জীব যে কোথা থেকে ও কীভাবে এলো – এই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নে না হয় না-ই বা গেলেন। কেননা ডারউইনবাদীরা এই প্রশ্নে প্রচণ্ড ভয় পায়! সেই জীবের মাথা নেই। কান নেই। নাক নেই। চোখ নেই। হাত-পা নেই। ব্রেন নেই। বুদ্ধিমত্তা নেই। হাড়-মাংসপেশী নেই। প্রকৃতপক্ষে মানুষ বা অন্য কোন প্রাণীর সাথে তুলনা করলে কিছুই নেই। .....

২০ টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বিবর্তনবাদ তত্ত্ব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা – ৬

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ মঙ্গলবার, জুন ২২, ২০১০ (৫:৪১ অপরাহ্ণ)

monkey

ইতোমধ্যে অখণ্ডনীয় কিছু যুক্তির সাহায্যে দেখিয়ে দেয়া হয়েছে যে, বাস্তবিক দৃষ্টিকোণ থেকে একটি প্রজাতি থেকে ভিন্ন একটি প্রজাতি মন্থর গতিতে বিবর্তিত হওয়া সম্ভব নয়। তথাপি কেউ যদি কোনভাবে সম্ভব মনে করেন তাহলে সেরকম জোরালো যুক্তি-প্রমাণ উপস্থাপন করতে হবে। যেমন একটি জীব থেকে সবগুলো প্রজাতি বিবর্তিত হতে হলে বিবর্তনের কোন এক পর্যায়ে সরাসরি ডিম পাড়া অস্তন্যপায়ী কোন প্রাণী থেকে সরাসরি বাচ্চা দেয় স্তন্যপায়ী প্রাণী বিবর্তিত হতেই হবে। মন্থর গতিতে এই ধরণের বিবর্তন যে কীভাবে সম্ভব – সেটা নিদেনপক্ষে শক্তিশালী .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>

বিবর্তনবাদ তত্ত্ব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা – ৫

লিখেছেন: ' এস.এম. রায়হান' @ বৃহস্পতিবার, মে ২৭, ২০১০ (৫:৪৯ অপরাহ্ণ)

ডারউইনবাদী নাস্তিকদের অন্ধ-বিশ্বাস অনুযায়ী ব্যাকটেরিয়া-সদৃশ সরল একটি জীব থেকে উদ্দেশ্যহীন পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক নির্বাচনের মাধ্যমে মিলিয়ন মিলিয়ন ধরণের মাছ, পশু-পাখি, সরীসৃপ, কীট-পতঙ্গ, ফল-মূল, খাদ্য-শস্য, উদ্ভিদ, ও মানুষ সহ সকল প্রকার প্রজাতি বিবর্তিত হয়েছে। এটি নাকি গাছ থেকে ভূমিতে অ্যাপেল পড়ার মতই সত্য ঘটনা! তাদের এহেন বিশ্বাসের কথা শুনে পৌরাণিক কল্পকাহিনীতে বিশ্বাসীরাও নড়ে-চড়ে বসে নিজেদেরকে গর্বিত মনে করবেন এই ভেবে যে, ডারউইনবাদীদের বিশ্বাসের চেয়ে তাদের বিশ্বাস অনেক বেশি যৌক্তিক। এমনকি নৈতিক দিক দিয়েও পৌরাণিক কল্পকাহিনীতে বিশ্বাসীরা এগিয়ে থাকবেন। কেননা পৌরাণিক কল্পকাহিনীকে .....

টি মন্তব্য  |  বিস্তারিত >>